ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৮ এপ্রিল ২০২৪
  1. সর্বশেষ

মৌলভীবাজারে ৮ বছরের শিশু ধ*র্ষণকারী হান্নান মিয়া নবীগঞ্জ থেকে আটক

প্রতিবেদক
নিউজ এডিটর
১১ মার্চ ২০২৩, ৭:৩৭ অপরাহ্ণ

Link Copied!

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:-

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১১ নং মোস্তফাপুর ইউনিয়ন, ৩ নং ওয়ার্ড লামা জগন্নাথপুর গ্রামের জসিম মিয়ার মেয়ে ফাতেমা আক্তার মিম (৮) কে ধর্ষণ করেছে হান্নান মিয়া (৫৫) নামের এক বৃদ্ধ।

জানা যায় ধর্ষণকরী হান্নান মিয়া পেশায় একজন টমটম চালক। তার পৈতৃক নিবাস
মৌলভীবাজার সদর উপজেলার আমতৈল ইউনিয়নের মাসকান্দি (বলরামপুর) গ্রামে।

বর্তমানে সে দীর্ঘ ৬ বছর যাবৎ ১১ নং মোস্তফাপুর ইউনিয়ন এর ৩নং ওয়ার্ড লামা জগন্নাতপুর গ্রামে বসবাস করে আসছে।

স্থানীয়সূত্রে জানা যায় ধর্ষক হান্নান মিয়া তার নিজ বাড়ি মাসকন্দী গ্রামে এর আগেও একই ধরণের ঘটনা ঘটায় এবং দুটি শিশুকে শারিরীক নির্যাতন করে।
পরবর্তীতে দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর সে লামা জগন্নাথপুর গ্রামে বসবাস করতে শুরু করে।

ফাতেমা আক্তার মিম এর মা সাজনা বেগম জানান গত ৮ই মার্চ ২০২৩ খ্রি. (বুধবার) বিকাল ৪:০০ ঘটিকার সময় মিম আক্তার বাড়ির পাশের মাঠে বন্ধুদের সাথে খেলাধুলা করছিল।সেখান থেকে মিম আক্তার ও মাইশা নামের আরেকটি মেয়েকে ঢেকে নিয়ে যায় হান্নান মিয়া।
তখন মিম আক্তার কে একটি ঘরে আটক করে ধর্ষণ করে হান্নান মিয়া।

ধর্ষণের পর মিম তার মায়ের কাছে কাপর পালটানোর কথা বললে তার মা দেখতে পান মেয়ের শরীর থেকে রক্তক্ষরণ হচ্ছে,তিনি মেয়েকে জিজ্ঞাসা করলে উত্তরে মেয়ে কিছুই বলতে পারেনি।প্রচন্ড রক্তক্ষরণ হওয়ার কারণে তিনি সাথে সাথে মেয়েকে নিয়ে মৌলভীবাজার ২৫০শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে রওয়ানা হলে রাস্তায় টমটম চালক হান্নানের সাথে দেখা হয় এবং তার গাড়ি করে হাসপাতালে যাওয়ার উদ্দেশ্যে রোয়ানা হলে সে তাদেরকে সদর হাসপাতালে না গিয়ে অন্যত্র ডাক্তার দেখাতে জোর জবস্তি করে।
কিন্তুু তারা এতে রাজি না হলে শেষমেশ চালক হান্নান মিয়া তাদেরকে নিয়ে সদর হাসপাতালে যেতে বাধ্য হয়।

সদর হাসপাতালে গিয়ে হান্নান মিয়া গাড়ি ভাড়া না নিয়ে উল্টো নির্যাতিতা ‘মিমে’র মায়ের কাছে কিছু টাকা দিতে চাইলে মিমের মা সাজনা বেগম টাকা গ্রহণ করেন নি।অনেক চেষ্টার পর টাকা দিতে ব্যর্থ হলে হান্নান মিয়া দ্রুত হাসপাতাল এলাকা পরিত্যাগ করে।

মিমকে হাসপাতালে নিয়ে প্রবেশ এর পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মিম কে দেখে বলেন এটি পুলিশ কেইস,থানায় গিয়ে আগে মামলা করতে হবে,তা না হলে তারা ভিক্টিমকে কোন ধরণের চিকিৎসা সেবা দিতে পারবেন না।

মিমের মা তখন মিমকে একাকী আলাদা একটি রুমে নিয়ে বিষয়টি জানতে চাইলে সে জানায় ওই টমটম চালক হান্নান তাকে নির্যাতন করে।

মিমের মূখ থেকে সম্পূর্ণ বিষয় জানতে পেরে মিমে’র বাবা সঙ্গে সঙ্গে মৌলভীবাজার মডেল থানায় “নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ সংশোধীত ২০২০” একটি মামলা দায়ের করেন যার মামলা নম্বর হচ্ছে ১৪/৮৩।

মামলা দায়ের করার পরবর্তীতে নির্যাতিতা মিম কে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং বর্তমানে সেখানে তাকে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

এ প্রতিবেদক এই বিষয়ে জানতে রুজুকিত মামলার দায়িত্বপ্রাপ্ত এস আই মুখলেছুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং তিনি জানান নির্যাতনকারী হান্নান পলাতক রয়েছিল। গতকাল ১০ মার্চ রাত আনুমানিক ৯:৫০ মিনিটের সময় তাকে নবীগঞ্জ উপজেলার ইনাতগঞ্জ বাজার থেকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে।

123 Views

আরও পড়ুন

লোহাগাড়ায় বহুতল ভবন থেকে পড়ে শিশু শিক্ষার্থীর মৃত্যু

বগুলা স্কুল অ্যান্ড কলেজের গভর্নিং বডির নির্বাচন সম্পন্ন

মহেশখালীতে ভাইচ চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জহির উদ্দিনের প্রার্থীতা স্থগিত

দেওড়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ‘এক্স স্কাউট রি-ইউনিয়ন’ আয়োজিত

শেরপুরে ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে কলেজ ছাত্রের আ’ত্ম’হ’ত্যা

নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্ত দিয়ে আবারো জান্তা বাহিনীর ১০ সদস্য বাংলাদেশে আশ্রয় !! 

তরুণ কবি তানভীর সিকদারের একান্ত সাক্ষাৎকার

মানবতার ফেরিওয়ালা

রাজশাহীর দুই উপজেলায় আট চেয়ারম্যান প্রার্থী

রাজশাহীতে র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ছিনতাইয়ের মালামালসহ ০৩ জন গ্রেফতার ।

আনোয়ারায় মৎস্যপল্লীতে আগুন, কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

নাগরপুরে ট্রাক চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত