,

রাস্তায় গর্ত, সংস্কার করলো শিক্ষার্থীরা

রাফিউল ইসলাম (রাব্বি) স্টাফ করেসপন্ডেন্ট:

বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসার রাস্তাটিতে বেশ কয়েকটি জায়গায় ভেঙ্গে গিয়ে গভীর গর্তের সৃষ্টি হয়েছিল। ফলে স্কুলে যেতে কষ্ট হতো শিক্ষার্থীদের। এলাকার কয়েক হাজার মানুষের হাট-বাজারে যাতায়াত ওই রাস্তা দিয়ে। রাস্তার বিভিন্ন স্থানে গর্তের কারণে মাঝে মধ্যেই দুর্ভোগে পড়তে হতো গ্রামবাসী ও স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের। এ অবস্থায় নিজের স্কুলের রাস্তার ভাঙা অংশগুলি নিজেরাই সংস্কার করলো মিঠাপুকুর উপজেলার রাণীপুকুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা।

শুক্রবার সকালে সরেজমিনে দেখা যায়, রাস্তার পাশে খাদ থেকে কোদাল দিয়ে মাটি কেটে ঝুড়ি ও বস্তায় ভর্তি করা হচ্ছে। সেগুলো ভাঙা গর্তগুলোতে ভরাট করছেন শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের এমন উদ্যোগে সন্তোষ প্রকাশ করেন ওই এলাকার মানুষ।

রাস্তা সংস্কার কাজে অংশ নেয়া শিক্ষার্থী মাহামুদুল হাসান জানান, এরশাদমোড় হয়ে অল্প সময়ে রাণীপুকুর যাওয়ার একমাত্র রাস্তা এটি। সামান্য বৃষ্টি হলেই রাস্তাটির ভাঙা অংশগুলো পানিতে ভরে যায়। ভাঙা স্থানগুলোর জন্য স্কুল যাওয়া-আসার কষ্ট হতো। পাশাপাশি এলাকার অনেককেই ভাঙা গর্তে পড়ে যেতে দেখেছি। দিনের পর দিন যেন দুর্ভোগ বেড়েই চলছিল। তাই, স্কুলের বন্ধুরা মিলে কাজ করে ভাঙা অংশগুলো মেরামত করছি। এ ধরনের কাজ করতে পেরে খুব আনন্দ হচ্ছে। এ কাজের সঙ্গে জড়িত স্কাউট সদস্য ইব্রাহিম ইসলাম, আব্দুর রাকিব ও সাগরসহ শিক্ষার্থীরা জানায়, শুক্রবার বন্ধের দিন নিজের স্কুলের যাওয়ার ভাঙা রাস্তা আমরা নিজেরাই মেরামতের কাজ করতে পেরে খুব ভাল লাগছে।

রাণীপুকুর উচ্চ বিদ্যলয় ও মহাবিদ্যালয়ের আব্দুল্লাহেল কাফি বলেন, স্কুলের শিক্ষার্থীরা এলাকার উন্নয়নের জন্য কাজ করছে। এর মাধ্যমে তারা সমাজসেবা ও স্বেচ্ছাশ্রমের শিক্ষা পাচ্ছে। তাদের এমন উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়।

Comments are closed.