ঢাকামঙ্গলবার , ৩১ জানুয়ারী ২০২৩
  1. সর্বশেষ
  2. সারা বাংলা

দালাল নিয়ন্ত্রিত কালারমারছড়া ভূমি অফিস

প্রতিবেদক
নিউজ এডিটর
২৫ নভেম্বর ২০২২, ৭:৩৪ অপরাহ্ণ

Link Copied!

কাইছারুল ইসলাম,মহেশখালী (কক্সবাজার)

ভূমি অফিসের আশেপাশে গ্রাহকদের কাছ থেকে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে দালালরা। এমনকি প্রত্যেক স্বাক্ষরের জন্যও গ্রাহকদের গুনতে হচ্ছে এক থেকে দুই হাজার টাকা। অফিসের কর্মকর্তারা নয়, সব সেবা নিয়ন্ত্রণ করছে দালালরা।

সম্প্রতি কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়ন ভূমি অফিসে গিয়ে এমন চিত্র দেখা গেছে।

মহেশখালীতে সরকারি বিভিন্ন মেগা প্রকল্পের কাজ চলার সুবাদে চলছে ভূমি অধিগ্রহণ। ভূমি অধিগ্রহণের শুরু থেকেই দালালের সাথে পরিচয় মিলে সাধারণ মানুষের। এলও শাখার দালাল থেকে শুরু করে নতুন পুরাতন দালালের হাঁটবাজার কালারমারছড়া ভূমি অফিসের আশপাশ। নিত্য নৈমিত্তিক এ দালালদের হাঁট বসে ভূমি অফিসের আশে পাশে।

কালারমারছড়া ইউনিয়নের ইউনুছখালী,ঝাপুয়া,কালারমারছড়ায় এখন ভুরি ভুরি ফাইল হাতে দালালরা। ভূুমি অফিসে সাধারণরা যাওয়ার পূর্বে তাদেরকে দাখিলা কেটে দেওয়া, খতিয়ান সৃজন,নামজারি ইত্যাদি সহজে করে দেওয়ার নামে বিশাল অংকের টাকা হাতিয়ে লাখপতি বনে যাচ্ছে। কেউ কেউ ব্যবসা ছেড়ে নেমেছে দালালী ব্যবসায়।আবার কেউ কেউ বিদেশ ছেড়ে এসে যুক্ত হয়েছে দালালীতে। কসাই মনজুর এখন এলও অফিসের নামকরা দালাল। সেও ভূমি অফিসে ফাইল নিয়ে যায় প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায়।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, ইউনিয়ন ও উপজেলা ভূমি অফিসের কয়েকজন অস্থায়ী স্থানীয় কর্মচারী দীর্ঘদিন ধরে কর্মরত আছেন। হারুন,কম্পিউটার অপারেটর ফয়সাল,ছগীর,সাদ্দাম সকল কর্মচারী স্থানীয় বাসিন্দা। দীর্ঘদিন একই এলাকায় অবস্থানের কারণে স্থানীয়দের সঙ্গে তাদের একটি নিবিড় সম্পর্ক হয়েছে বলে জানা যায়। অনেকেই সে সুযোগটা কাজে লাগাচ্ছে।

প্রবীণ এক মুরুব্বি জানান, দালালরা ”বাঁলরে হাইকোর্ট’ দেখিয়ে ফাইলপত্র নিয়ে নেয়। সহজ হিসাবকে কঠিনভাবে বুঝিয়ে সাধারণ মানুষকে বোকা বানিয়ে ফাইল ধরে। তহশিলদারের চেয়ে বড় মিয়া তারা। তবে চিহ্নিত দালালরা খোলশ বদলেছে দালালীর। শাহাব উদ্দিন,মনজুর,মাহাবুব ও আজিজ ভূমি অফিসের নিয়মিত দালাল। ভূুমি অফিসের কালপ্রিট দালাল শাহাব উদ্দিন। সরাসরি ভূমি অফিসে ঢুকে না তারা। সাংবাদিকের নজর এড়াতে তারা ফাইল পত্র নিয়ে স্থানীয়দের কমিশনের ভিত্তিতে জড়াচ্ছে দালালীপনায়।

ইউনিয়ন ভূমি অফিস ঘিরে সক্রিয় রয়েছে ৮ থেকে ১০ জন দালাল। দালালরা স্থানীয় পেশীশক্তির ভয় দেখায় কাজ না করলে। অন্যদিকে ভূমি অফিসের কোনো কর্মচারীর কাছে সেবাপ্রত্যাশী মানুষ সহযোগিতা চায়তে যাওয়ার পূর্বেই সাত পাঁচ বলে সাধারণ মানুষদের থেকে ফাইল নিয়ে নেয় দালালরা। ফলে তারা তহশিলদারের কাছে পৌঁছানোর আগেই দালালের খপ্পরে পড়ে। আজিজ নামের একজন দাখিলা কেটে বের হওয়ার সময় বলেন, আমি দুই দিন এসেই সেবা পেয়েছি। আমার কাছেও একজন দালাল ফাইল নিতে চেয়েছে। বলছি আমার কাজ আমি করব।

ভূমি অফিসের অনিয়ম, দালাল, হয়রানি ভূমি অফিসের চিত্র তুলে ধরে তহশীলদার বলেন, নাগরিক কর্ণার আমি ওপেন করে দিয়েছি। যে কেউ এসে অনলাইন সেবা নিতে পারে। এখানে অক্টোপাস,জোঁকের মতো দালাল জেঁকেছে। কে সেবাগ্রহীতা কে দালাল চেনা যায় না। অনেকেই আত্নীয় স্বজনের পরিচয়ে দাখিলা কাটে। আমি কোন সেবাগ্রহীতাকে হয়রানি করার ডকুমেন্টস থাকলে আমার বিরুদ্ধে লিখুন। অনেকজনের কাছ থেকে শুনলাম, সেবাগ্রহীতা আমার বরাবর আসার পূর্বেই দালালদের মিষ্টি কথার ফাঁদে পড়ে। দালালরা সহজ সেবাকে কঠিন করে বুঝায় সেবাপ্রার্থীদের। তারা কাজ করে না দিলে পেশীশক্তি দেখাতে চায়। যদি পারেন আমাকে এ অফিস থেকে উত্তোরণের ব্যাবস্থা করেন।

আরও পড়ুন

২০ টাকার ইনজেকশন হাজার টাকায় বিক্রি: ৪০ হাজার টাকা জরিমানা

নোয়াখালীতে সরকারি চাকরিজীবীদের আবাসিক ফ্ল্যাটের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

বিরামপুরে বিএনপি’র উদ্যোগে কম্বল ও সোয়েটার বিতরণ

নওগাঁর পত্নীতলায় উপজেলার বিভিন্ন দপ্তর পরিদর্শন করলেন ডিসি

সম্পাদক ও কলামিস্ট জব্বার হোসেনের জন্মদিন

মৌলভীবাজারে ক্যাম্পেইন ফর মিডিয়া ফ্রিডম (সিএমএফ) এর উদ্যোগে শীত বস্ত্র বিতরণ

দোয়ারাবাজারে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সংঘর্ষ, আহত ৬

পাহাড়ের তিন জেলায় এলজিইডি'র মানব বন্ধন ;
চসিক প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলীর ওপর হামলার নিন্দা, প্রতিবাদ

দূ্র্গম পার্বত্য চট্টগ্রাম’র দুর্গম দুমদুম্যা এলাকায় সীমান্ত সড়ক প্রকল্প পরিদর্শন করলেন সেনাপ্রধান

কুতুবদিয়ায় মিয়ার পাড়া নতুন কবরস্থানের জায়গা বিক্রির পায়তারা

ঘোড়াঘাটে এমপি শিবলি সাদিকের পক্ষে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থরা পেল টিন ও চেকসহ বিভিন্ন সামগ্রী

ঠাকুরগাঁওয়ে সাংবাদিকের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন