ঢাকাসোমবার , ৪ জুলাই ২০২২
  1. সর্বশেষ

রাবিতে সাদামাটা আয়োজনে পহেলা বৈশাখ উদযাপন

প্রতিবেদক
নিউজ এডিটর
১৪ এপ্রিল ২০২২, ৪:০৫ অপরাহ্ণ

Link Copied!

রাবি প্রতিনিধি:

বাঙালির ঐতিহ্যবাহী পহেলা বৈশাখ সাদামাটা আয়োজনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) উদযাপিত হচ্ছে । প্রতিবছর ক্যাম্পাস ঘিরে বাংলা নববর্ষকে স্বাগত জানাতে শিক্ষক-শিক্ষার্থী আর উৎসুক জনতার ভিড় থাকলেও এবছর তা লক্ষ্য করা যায়নি। বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা প্রাঙ্গণেও নববর্ষ উদযাপন আমেজের কোন প্রাণচঞ্চল্যতা ও মানুষের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো ছিল না।

তবে বর্ষবরণ উপলক্ষে চারুকলা চত্বরের ভবনটিতে দেয়ালচিত্র তৈরি করা হয়েছে। রং তুলিতে আঁকা হয়েছে বাঙালির ইতিহাস ও ঐতিহ্যের প্রামাণ্যচিত্র। দেয়ালের চিত্রপ্রদর্শনীগুলো যেন সাংস্কৃতিক মননের বাঙালী সমাজের মিলনমেলায় পরিণত হওয়ার অস্তিত্ব বহন করছে।

প্রতিবারের মতো এবারও মূল আয়োজক ছিলো বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা অনুষদ। ‘খেরোখাতায় আঁকবো রে আজ, শিল্পী মনের কথা। রঙ ছাড়িয়ে রাঙাবো আজ, আমাদের হালখাতা’_ প্রতিবাদ্যকে সামনে রেখে এবছর উদযাপিত হচ্ছে পহেলা বৈশাখ।

দিবসটি উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১৪ এপ্রিল) বেলা ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা চত্বরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়া, অধ্যাপক সুলতান_উল_ইসলাম, সভাপতিত্ব করেন চারুকলা অনুষদের ডীন অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী।

এসময় বক্তারা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানান। বাঙালীর ঐতিহ্যের ইতিবাচক বিষয়গুলোকে ধারণ করা এবং নেতিবাচক বিষয়গুলোকে বর্জন করার পরামর্শ দেন। নতুন বছরটি সকলের জন্য শুভ ও কল্যাণময় হোক, বয়ে আনুক সাফল্য ও সমৃদ্ধি এই প্রত্যাশাও ব্যক্ত করেন। এসময় খেরো খাতার উদ্বোধন ও শখের হাড়িতে মিষ্টি বিতরণ করা হয়।

এছাড়া নববর্ষকে বরণ করতে আসা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তৌফিক বলেন, বাঙালির হাজার বছরের লোকসংস্কৃতিকে ধারণ করে প্রতিবছর পালিত হয় পহেলা বৈশাখ। এটি বাঙালীর মনন, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে মনে করিয়ে দেয়। তবে এখানে যেভাবে দোয়ালে চিত্র এঁকে নারীকে স্বল্প বস্ত্রে ও অর্ধ উলঙ্গ দেখানো হয়েছে তা সত্যিই অপ্রত্যাশিত ছিল। বাঙালি নারীরা কি এতটাই নির্লজ্জ ও বেহায়া যে তাদের বক্ষ জামা দিয়ে না ঢেকে শুধু আঁচল দিয়ে ঢাকবে বা নাভী খোলা রেখে হাঁটবে?

পরিবার নিয়ে ঘুরতে আসা ফাহমিদা আক্তার বলেন, করোনার ধাক্কা সামলে আবারও আমরা সকলেই নববর্ষের উৎযাপনে মেতে উঠতে পারছি তা অবশ্যই ভালো লাগার। দুই বছর পর পরিবারের সাথে নববর্ষ উৎযাপন করতে পারছি যা আরো ভালো লাগার। নববর্ষ মানেই নতুন উদ্যম নিয়ে চলা, নতুন কিছু উদ্ভাবন করা, নতুন বছরে পুরাতন বছরের গ্লানি মুছে ফেলে পরিবারের সকলকে সাথে নিয়ে চলতে চাই এটাই নতুন বছরের প্রত্যাশা। স্বল্প পরিসরে হলেও এতো সুন্দর একটা আয়োজন করার জন্য চারুকলা অনুষদকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানান তিনি।

বর্ষবরণের সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ডীন অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী বলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয়ভাবে কোন প্রোগ্রাম হচ্ছে না। সেজন্য আমরা প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে স্থানীয়ভাবে স্বল্প পরিসরে আয়োজন করেছি। এছাড়াও আজ সন্ধ্যায় ইফতার ও হালখাতার মিষ্টিমুখ করানো হবে।

তিনি বলেন, আমাদের এটা এক অর্থে বৃহৎ অনুষ্ঠান হয়েছে। দুটি অর্থে আমার অনুষ্ঠানটি ভাগ করেছি। একটি হলো- দেয়াল চিত্রের মাধ্যমে আমরা বাংলার ঐতিহ্য তুলে ধরেছি। আরেকটি হলো বৈশাখের শেষ দিনে মঙ্গল শোভাযাত্রা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।##

আরও পড়ুন

নোয়াখালীতে একাধিক মামলার আসামি লাল আজাদ গ্রেপ্তার

প্রেম করে বিয়ে:স্বামীর সঙ্গে মনোমালিন্যে নববধূর আত্মহত্যা

বৃদ্ধের পায়ুপথে টর্চলাইট ঢুকিয়ে নির্যাতন: যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার

নোয়াখালীতে বিআরটিসি বাস পুনরায় চালুর দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল

হরিপুরে আ‘লীগের সম্মেলনকে ঘিরে নিবার্চনী হাওয়া বইছে

গোয়েন্দা পুলিশের জালে ২ ইয়াবা কারবারি

মোঃ আবু নাঈম এর কবিতা : বাংলাদেশ

রামুতে প্রতিবেশীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে গৃহবধূ’র বি*ষপানে আত্ন*হত্যা

প্লাস্টিক মানবসভ্যতার হুমকিঃ সিইএইচআরডিএফ

ভৈরবে এনটিভির বর্ষপূর্তি উদযাপিত

কক্সবাজারের প্রতিপক্ষের দায়ের কোপে ছাত্রলীগ নেতা ফয়সাল নিহত

ছাতকে বন্যায় সাবরিনা ট্রেডার্স’র লক্ষ লক্ষ টাকার ক্ষতি