ঢাকাসোমবার , ৪ জুলাই ২০২২
  1. সর্বশেষ

মায়া থেকে মুক্তির উপায় !!

প্রতিবেদক
নিউজ এডিটর
১৪ এপ্রিল ২০২২, ৪:৪৯ পূর্বাহ্ণ

Link Copied!

লেখক: মফিজুল ইসলাম

মায়া তো মহান সৃষ্টিকর্তার মধ্য ৯৯ ভাগ আর ১ ভাগ দুনিয়ার মানুষের মাঝে বন্টন করে দিছে তাহলে ১ ভাগ মায়ার জন্য আমরা একে অপরে আবেগে প্রচন্ড ভালবাসা সৃষ্টি হয়। ছেড়ে দিতে চাইলেও মনে চায় বার বার থাকি। মায়া ছাড়তে মনে চায় না, যেভাবে হোক মায়াবী চেহারাটা দেখার জন্য পলকে ছুটে বেড়াই বুঝাইতে চাইলেও লোকে বুঝবে কম কারণ আপনার মায়া সে বুঝবে না।
এমন কথা গুলো বলার কারণ হলো আপনার একভাগ মায়ার জন্য এত আবেগ, রাগ অভিমান, প্রিয় লোক গুলো না দেখলে মনটা ছুই ছুই করে, তাহলে আল্লাহ্ ৯৯ ভাগ দয়া মাঝে কত পরিমান বান্দার প্রতি কত মায়া জড়িয়ে আছে? একটু ভাবুন তো।

মনে করেন আপনি যাকে চাচ্ছেন ওরে পাবেন না, সিচুয়েশন ভিত্তি করে। আপনি বিফল! তো এখন আপনার কাজ আল্লাহর প্রতি একটু মায়া জড়িয়ে দেন দেখবে আপনার সমস্ত আশা পূরণ হবে। কেননা আপনার ১ ভাগ মায়া দিয়ে আপনি আল্লাহকে ভালবেসেছেন আর ৯৯ ভাগ দয়া দিয়ে আপনার কথা সাড়া না দিয়ে পারবে না মহান সৃষ্টিকর্তা।
যদি আপনি সঠিক মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করতে পারেন। অবশ্যই প্রিয় মানুষটি পাবেন। কেননা মহান আল্লাহ উত্তম সিধান্তকারী।

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় মায়া হয় তখন যখন ছেড়ে যাওয়ার সময় চলে আসে।
— রালফ স্মার্ট

আর যদি কখনো সেই মায়াভরা মানুষটি ‘ভালো থেকো’ বলে হুট করে হারিয়ে যায়, তখন মানুষের তীব্র কষ্ট হয়, বুক শূন্য শূন্য লাগে, মনে হয় কোথাও আজ কেউ নেই। একাকিত্ব চেপে ধরে বুকের ভেতর তখন খুব কষ্ট লাগে। এ ‘ভালো থেকো’ বলার মাঝে তীব্র অভিমান কাজ করে।

আমি অসুস্থ ছিলাম, তখন বুঝেছি কত মানুষ নিঃস্বার্থভাবে মায়ায় জড়িয়ে ছিল।

অনেকেই বারবার খবর নিয়েছেন, তাঁদের প্রত্যেকের কাছে কৃতজ্ঞতা। এ মায়ার ঋণ শোধ হওয়ার নয়। এই ঋণে থাকতে চাই আজীবন।

বাড়িতে আসা মেহমান হুট করে চলে গেলেও কষ্ট লাগে, বাড়িটা তখন শূন্য লাগে। তাঁদের প্রতি অল্প সময়ে মায়া জন্মে যায়। এভাবে সবাই আচমকা এক মায়ায় জড়িয়ে বিদায় নেয়। মায়াগুলো বড্ড খারাপ। হারিয়ে গেলে কেবল নিরন্তর কষ্ট দিয়ে যায়।

এসব মায়া কখনো ভালোবাসায় রাখে আবার কখনো খুব পোড়ায়। এই জীবনে কাছের অনেক মানুষ আমাকে ভুল বুঝে চলে গেছে আবার অনেককে আমি হয়তো ছেড়েছি।

এদের আপন ভেবেছি, ভালোবেসেছি, সুখ-দুঃখ শেয়ার করেছি …সময়ের বিবর্তনে আজ কেউ কারও নই কিন্তু তার জন্য জন্ম নেওয়া মায়া কমে না। এই মানুষগুলো বুকের একটা জায়গাজুড়ে থাকে বহুকাল।
এই মুহূর্তে রিমঝিম বৃষ্টি শুরু হয়েছে, আমি অনেক দিন পর আজ ভিজছি। দুঃখগুলো একটু ধুয়েমুছে ফেলে দিতে চাই। আকাশে বিদ্যুৎ চমকাচ্ছে, কিন্তু আজ ঘরে ফেরার মন নেই। পাশের বাসায় কে যেন গান শুনছে…ভেসে আসছে আমার মন উদাস করা উথালপাতাল সুর…
কেউ যখন আর নেই পাশে
তন্দ্রা মগন কোনো আকাশে
দূর সময়ের নিশ্বাসে গোধূলির খেলা
দিন শেষে নিয়ে আসে মায়া…
তোর পানে মায়া…তোর গানে মায়া…
তোর কাছে যাই চলে।

আরও পড়ুন

নোয়াখালীতে একাধিক মামলার আসামি লাল আজাদ গ্রেপ্তার

প্রেম করে বিয়ে:স্বামীর সঙ্গে মনোমালিন্যে নববধূর আত্মহত্যা

বৃদ্ধের পায়ুপথে টর্চলাইট ঢুকিয়ে নির্যাতন: যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার

নোয়াখালীতে বিআরটিসি বাস পুনরায় চালুর দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল

হরিপুরে আ‘লীগের সম্মেলনকে ঘিরে নিবার্চনী হাওয়া বইছে

গোয়েন্দা পুলিশের জালে ২ ইয়াবা কারবারি

মোঃ আবু নাঈম এর কবিতা : বাংলাদেশ

রামুতে প্রতিবেশীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে গৃহবধূ’র বি*ষপানে আত্ন*হত্যা

প্লাস্টিক মানবসভ্যতার হুমকিঃ সিইএইচআরডিএফ

ভৈরবে এনটিভির বর্ষপূর্তি উদযাপিত

কক্সবাজারের প্রতিপক্ষের দায়ের কোপে ছাত্রলীগ নেতা ফয়সাল নিহত

ছাতকে বন্যায় সাবরিনা ট্রেডার্স’র লক্ষ লক্ষ টাকার ক্ষতি