চাঁদপুরে বিদেশি ডিজাইনের দৃষ্টিনন্দন স্কুল

received_389140621709606.jpeg

মুহা. ইকবাল আজাদ

চাঁদপুর পুরান বাজার ব্রিজের কাছে যেতেই সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালকদের হাঁক। এই “শাহাবুদ্দিন স্কুল, শাহাবুদ্দিন স্কুল। ভাই কি স্কুলে যাবেন?” যাত্রীরাও সাড়া দেয়। গত দুয়েক সপ্তাহে এই রুটের চালকদের যাত্রীর সংখ্যা বেড়েছে কয়েক গুণ। স্থানীয় মানুষগুলো ভিড় করেছেন, বেড়েছে পর্যটকদের সংখ্যাও। সবকিছুর পেছনের রহস্য ওই ‘শাহাবুদ্দিন স্কুল এন্ড কলেজ।’ বিদেশী স্কুলের আদলে তৈরি এই স্কুল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টি করে। নজর কাড়ে মানুষের মনে। ভিন্ন ধর্মী এই স্কুল দেখতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে মানুষ পাড়ি জমাচ্ছেন। আসছেন কলেজ ভার্সিটির শিক্ষার্থীরাও।

২০১৫ সালের অক্টোবরে মাসে চাঁদপুরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো. শাহাবুদ্দিন অনু সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামে এই স্কুলটি প্রতিষ্ঠা করেন। ১১৬ শতাংশ জমির উপর এই নান্দনিক স্কুলটি তৈরি হয়। শাহাবুদ্দিন ফাউন্ডেশনের একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচিতি পায়, ‘শাহাবুদ্দিন স্কুল এন্ড কলেজ।’ গত দুই বছর ধরে শুরু হওয়া এই স্কুলের কার্যক্রম এখনো প্রাথমিক পর্যায়ে চলছে। প্লে থেকে চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত মোট ১৬৮ জন শিক্ষার্থী বর্তমানে পড়াশোনা করছে। ক্রমন্নয়ে শ্রেণি কার্যক্রমের উন্নতি হবে জানান এলাকাবাসী।

চাঁদপুর সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামে অবস্থিত এই ব্যতিক্রমী স্থাপনাটি। স্থানীয়দের মতে, এটি ইউরোপীয়দের অনুকরণে তৈরি একটি অসাধারণ প্রতিষ্ঠান। যার ভবন বৈশিষ্ট্য অন্যান্য সকল প্রতিষ্ঠান থেকে সম্পূর্ণ আলাদা। দ্বিতল এই স্কুল ভবনের ছাদের পরিবর্তে দেওয়া হয়েছে কারুকাজে সজ্জিত সিমেন্ট শীটের ছাউনি। ভবনের মাঝখানে এবং পূর্বপাশে রয়েছে দুইটি প্রসস্থ সিঁড়ি। ভবনটির চারপাশ অনেকটা খোলামেলা। যেখানে দিনের বেলায় সূর্যের আলো এবং রাতে চাঁদের আলো অবলীলায় প্রবেশ করে।

শাহাবুদ্দিন স্কুলের কূল ঘেঁষেই দন্ডায়মান স্কুলের রঙের একটি অনিন্দ্য মসজিদ। দ্বিতল মসজিদটির চারপাশের প্রাচীরে লম্বা ও ছোট ছোট ফাঁকা রয়েছে। যাতে স্কুলের মতোই এখানেও দিনে এবং রাতে প্রাকৃতিক আলো সৌন্দর্য বিলানোর সুযোগ পায়। স্কুল ভবনের প্রায় ১০০ মিটার দূরেই প্রবেশপথ। তার সাথে মিশে আছে গ্রামের রাস্তা। প্রবেশদ্বারের পাশ ঘেঁষে রয়েছে মুসল্লিদের অজুখানা। স্কুল ভবনের সামনেই রয়েছে তাজা ঘাসে উজ্জীবিত একটি প্রসস্থ মাঠ। মাঠের উত্তর প্রান্তে রয়েছে ভাষা শহীদদের প্রতীক ‘শহীদ মিনার।’ সব মিলিয়ে শাহাবুদ্দিন স্কুল এন্ড কলেজ দেশের নির্মিত একটি ব্যতিক্রমী ধর্মী প্রতিষ্ঠান। স্কুল ক্যাম্পাসটি উন্মুক্ত বিধায় ভ্রমণ পিপাসুদের আনাগোনা এখানে নিয়মিত লেগেই থাকে।

Top