রামুর কচ্ছপিয়াতে সড়কের বেহাল দশায় দুর্ভোগের যেন অন্ত নেই

received_856101924773445.jpeg

মোঃ সাইদুজ্জামান সাঈদঃ
কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের অর্ন্তগত নতুন রাস্তা মাথা থেকে ফকক্ষিণ চর মসজিদ পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার সড়ক।

রামু উপজেলার কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন ৬ নং ওয়ার্ডের নতুন রাস্তা মাথা থেকে ফকক্ষিণ চর পুর মসজিদ পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার সড়কজুড়ে বড় বড় গর্ত আর খানাখন্দ। দীর্ঘ সড়কের এমন বেহাল দশায় চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন স্থানীয়রা। এছাড়া সড়কে গর্ত আর খানাখন্দের জন্য প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা।

জানা যায়, পাঁচ বছর পূর্বে সড়কটি সংস্কার করা হয়। কিন্তু এ রাস্তা দিয়ে বড় ট্র্যাকক্টর চলাচলের কারণে এক বছর যাবত সড়কটি প্রায় চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। উঠে গেছে সড়কের বিটুমিন। ফলে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন এলাকাবাসী।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, দুর্ভোগের যেন অন্ত নেই এ অঞ্চলের খেঁটে খাওয়া কৃষক দিনমজুর কর্মজীবী ও স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীসহ হাজার হাজার মানুষদের জন দুর্ভোগে শেষ নাই।

কলেজ ছাত্র মোঃ ফারুক বলেন, যখন এই রাস্তা দিয়ে কলেজ, স্কুল, মাদারসা যাই তখন মনে হয় এই বুঝি সামনের দিক থেকে গাড়িটি আমার দিকে চলে আসছে। যদি রাস্তাটি সংস্কার করা হয় তাহলে আমাদের মনে এ ধরণের কোনো আতঙ্ক থাকবে না।

ভ্যানচালক মোঃ শফি বলেন দীর্ঘদিন ধরে বেহাল অবস্থায় পড়ে আছে সড়কটি গাড়ি চালাতে গেলে মনে হয় এই বুঝি উল্টে পড়লাম। আমরা এলাকাবাসী রাস্তাটি অতি সত্বর সংস্কারের দাবি জানাচ্ছি।

এ ব্যাপারে কচ্ছপিয়া চেয়ারম্যান আবু ইসমাঈল মোঃ নোমান বলেন, নতুন রাস্তা মাথা থেকে ফকক্ষিণ চর মসজিদ পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার সড়কটি প্রায় চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এ সময় সড়কটি সম্পর্কে ইতোমধ্যেই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Top