চবির শেখ হাসিনা হলের সিট বরাদ্দ নিয়ে ক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা : প্রতিবাদ ও স্মারকলিপি পেশ

56395070_661008001026276_4717952296833515520_n.jpg

চবি সংবাদদাতা :

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) শেখ হাসিনা হলের সিট বরাদ্দ নিয়ে প্রশাসন তালবাহানা করছেন বলে অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থীরা। দ্রুততম সময়ের মধ্যে হলে সিট বরাদ্দের দাবিতে প্রতিবাদ ও স্মারকলিপি প্রদান করেছেন সংযুক্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর বরাবর দুই দফা দাবিতে স্মারকলিপি প্রদানের পর বঙ্গবন্ধু চত্বরে প্রতিবাদ করেন তারা।

দফাগুলো হলো: ১. আগামী দুই কার্যদিবসের মধ্যে জননেত্রী শেখ হাসিনা হলের আসন বরাদ্দের জন্য সাক্ষাৎকারের তারিখ প্রদানের ব্যবস্থা করতে হবে। ২. পরবর্তী সাত কর্মদিবসের মধ্যে সাক্ষাৎ নেওয়াপূর্বক হলের আসন বরাদ্দ দিতে হবে।

শেখ হাসিনা হলের সংযুক্তিপ্রাপ্ত বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী শাহিনা আক্তার বলেন, হলের প্রভোস্ট স্যার আমাদের কথা দিয়েছিলেন জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে আমরা হলে উঠতে পারবো। স্যারের কথা মতো এমাসে আমি বাসা ছেড়ে দিয়েছি, কিন্তু হলে সিট বরাদ্দ দেওয়া হয়নি। বই-খাতা সব এক বান্ধবীর রুমে রেখে অন্যের রুমে ডাব্লিং করে থাকছি। পড়াশোনা একটুও হচ্ছে না।

লোকপ্রশাসন বিভাগের আকলিমা আক্তার বলেন, বার বার আমাদের কথা দিয়েও কথা রাখছেন না হল কর্তৃপক্ষ। আমরা খুব কষ্টে দিন অতিবাহিত করছি। স্যারদের কথার ভিত্তিতে শহরের বাসাও ছেড়ে দিয়েছি।

পদার্থবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী রিক্তা আহমেদ বলেন, ১৮ মাস ধরে অন্য হলের গণরুমে থাকছি। সিট বরাদ্দ হচ্ছে হচ্ছে বলে আর হচ্ছে না। ইতোমধ্যে সাক্ষাৎকারের তারিখ দিয়েও তিনবার পেছানো হয়েছে। আমরা এর দ্রুত সমাধান চাই। একই অবস্থায় পড়েছেন বাংলা বিভাগের উম্মে হানি এবং উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের আরিফা আক্তারের মতো শত শত শিক্ষার্থী।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) প্রনব মিত্র বলেন, আমরা তাদের বিষয়টি নিয়ে মিটিংয়ে বসবো। যতো দ্রুত সম্ভব তাদের বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করছি।

উল্লেখ্য, গত উপাচার্যের সময় (৩ এপ্রিল) সিট বরাদ্দের দাবিতে শেখ হাসিনা হলের সংযুক্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করেন। সে সময় দ্রুত সিট বরাদ্দের আশ্বাস দেন উপাচার্য। কিন্তু এখনো সিট বরাদ্দ পাননি শেখ হাসিনা হলের সংযুক্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা।

Top