জগন্নাথপুরে প্রশাসনের মানবিক উদ্যোগে ভাগ্য খুলছে হিজড়াদের

poto-1-59.jpg

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি :
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে প্রশাসনের মানবিক উদ্যোগে হিজড়াদের ভাগ্য খুলতে শুরু করেছে। সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ও জগন্নাথপুর উপজেলা প্রশাসনের সহযোহিতায় তারা পাচ্ছেন সব ধরণের নাগরিক সুযোগ-সুবিধা। এ নিয়ে হিজড়াদের মধ্যে আনন্দের শেষ নেই।
জানাগেছে, জগন্নাথপুরে হিজড়াদের যন্ত্রনায় অতিষ্ঠ হয়ে পড়েন সাধারণ মানুষ। হিজড়ারা বিভিন্ন কৌশলে মানুষের কাছ থেকে টাকা তুলে জীবিকা নির্বাহ করেন। এর মধ্যে বিয়ের গাড়ি থামিয়ে চাঁদা আদায়ের ঘটনায় হিজড়াদের প্রতি মানুষের মধ্যে বেশি ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। অবশেষে প্রশাসনের মানবিক উদ্যোগে সমাজের অবহেলতি, নিন্দিত ও ঘৃণিত হিজড়া জন গোষ্ঠীদের ভাগ্য খুলতে শুরু করেছে।
১ জুলাই সোমবার জগন্নাথপুর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে স্থানীয় হিজড়াদের নিয়ে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম মাসুম। এ সময় জগন্নাথপুর বাজার বণিক সমিতির সাবেক সভাপতি আবদার হোসেন ভূইয়া সহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন হিজড়া সমিতির সভাপতি জাহিদা হিজড়া, সুনামগঞ্জ জেলা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মিতালী হিজড়া, জগন্নাথপুর সমিতির সদস্য সুমনা হিজড়া, বৈশাখি হিজড়া, মায়াবী হিজড়া, নীলা হিজড়া, কবিতা হিজড়া, গোলাপী হিজড়া, লাবনী হিজড়া, বিপাশা হিজড়া, খোদে হিজড়া প্রমূখ।
এ ব্যাপারে জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম মাসুম বলেন, এ সমাজে অন্য সকল নাগরিকদের মতো হিজড়াদের বসবাসের সুযোগ রয়েছে। হিজড়াদের কর্মসংস্থান ও আলাদাভাবে গুচ্ছগ্রাম সহ সব ধরণের নাগরিক সুযোগ-সুবিধা প্রদান করা হবে। যাতে হিজড়াদের কারণে সমাজের মানুষকে আর কষ্ট পেতে না হয়। #

Top