আইনপেশা এবং আমার একান্ত ভাবনা।

received_613060562532664.jpeg

মোহাম্মদ সাইফুদ্দীন খালেদ, এডভোকেট।

মানুষের স্বপ্ন দেখা শুরু হয় যখন থেকে বুঝতে শিখে। আইন পেশার প্রতি অন্য রকম একটা আকর্ষণ সৃষ্টি হয় সেই ছোটবেলা থেকে। কোন বিচারক, আইনজীবী বা আইনের বই দেখলে কৌতূহল দৃষ্টিতে তাকিয়ে দেখতাম। ছোট্ট মনটাতে অনেক প্রশ্ন নিয়ে ঘুরে বেড়াতাম। আপনমনে উত্তর খুঁজতাম। নিজের মত করেই সকল প্রশ্নের পিঠে উত্তর বসিয়ে নিতাম। উত্তরে ছিল আমি আইনজীবী হবো। আইনপেশা যে একটি মহান পেশা এ বিষয়ে সন্দেহের লেশ মাত্র ছিলনা আমার মনে। তাই আইনজীবী হবার বড় ইচ্ছে থেকে আমার আইনজীবী হওয়া। আইনের ছাত্রদের মানুষ আলাদা চোখে দেখে। জগত সংসারে মর্যাদাবান পদগুলোতে রয়েছে বেশ আইনের ছাত্র। আইনজীবী সম্পর্কে রয়েছে অতীতের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে শুরু করে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় যে কোন আন্দোলন সংগ্রামে নেতৃত্বের প্রথম কাতারেই থেকেছেন আইনজীবীরা। দেশ স্বাধীনের পূর্ব ও পরবর্তী জাতীয় সংসদে প্রায় ৭০ ভাগ সদস্যই ছিলেন আইনজীবী। দেশের বিচারপ্রার্থী মানুষদের প্রত্যাশা পূরণে এবং গণমানুষের অধিকার আদায়ে অনেক খ্যাতনামা বিজ্ঞ আইনজীবীদের অবিস্মরণীয় ভূমিকা জাতিকে পথ নির্দেশ দিয়েছে।
.
স্বার্থ সংরক্ষণ ও অধিকার আদায়ে মানুষকে কতটুকু আশ্রয় দিতে পারে, সে কথা পরিপূর্ণরূপে সাধারণ মানুষের জানার কথা নয়। তার জন্য রয়েছেন বিশেষজ্ঞ বা আইনজীবী। বাস্তবিকই আইন এবং শৃঙ্খলার প্রদীপ শিখার শান্তি সভ্যতা ও অগ্রগতি দীপ্যমান, আর এই আলোকবর্তিকা প্রজ্বলিত রাখার দৃঢ় সংকল্পে অটল দেশের আইনজীবীরা। একজন আইনজীবী প্রতি মূহুর্তেই নাগরিক ও স্বাধীনতা সংরক্ষণে, আইনের পরিপন্থী কর্মপ্রবাহকে শুদ্ধ করার সাধনায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং সে প্রতিশ্রুতি আইনের ভাষায়। মানুষের কার্যাবলীর এমন কোন দিক নেই যা আইনের ব্যূহচক্রে পরিব্যাপ্ত না। Lord Macmillan এর ভাষায় “No other profession touches human life at so many points”।
.
একজন কোটিপতির জীবনের সমস্যা এবং একজন নিঃস্ব সহায়সম্বলহীন মানুষের সমস্যার স্বরূপগুলো কেমন- তার একেবারে গভীরে প্রবেশ করে হয়তোবা নিজেকে একজন আইনজীবী নতুনভাবে আবিষ্কার করতে সক্ষম হয় কখনও কখনও। কখনও হয়তোবা তার ব্যক্তিগত জীবন দর্শনও পাল্টে যায় এমনতর নানা ঘটনার দোলাচলে। জীবনযুদ্ধের পাশাপাশি অবহেলিত জনপদের মানুষ তাদের বিচার প্রাপ্তির অধিকার আদায়ের জন্য এক বুক আশা নিয়ে বিজ্ঞ আইনজীবীদের স্মরণাপন্ন হচ্ছেন। আত্মমর্যাদা এবং গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে বিপদগ্রস্ত ও দুঃখ-কষ্টে নিমজ্জিত মানুষের দুঃখটা ভাগাভাগি করে তা লাঘবে এবং সমাধানের চেষ্টায় দৈনন্দিনতা পার করেন একজন আইনজীবী। আবার কিছু মানুষের ব্যক্তিগত ও পারিবারিক জীবনের একান্ত সমস্যাগুলো যা সে অন্যদেরকে বলতে পারে না, বলতে চায় না- তা অনায়াসে আইনজীবীর নিকট বলে থাকেন। বিজ্ঞ আইনজীবীগণ সহমর্মিতার হাত বাড়িয়ে দেন, নিজেকে উৎসর্গ করেন মানবসেবায়। হয়তো এ জন্যই বলা হয়েছে “ঐ সমাজে বাস করা উচিত নয়, যেখানে একজনও আইনজীবী নেই”।

Top