জগন্নাথপুরে নারী নির্যাতন মামলা করে আসামীদের ভয়ে বাড়ি ছাড়া বাদী পরিবার

download-1-2.jpg

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি :
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে নারী নির্যাতন মামলা করে বিপাকে পড়েছেন বাদী পরিবার। দীর্ঘদিন ধরে আসামীদের ভয়ে বাদী পরিবার বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। এ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে জগন্নাথপুর উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের মুজাহিদপুর গ্রামে।
জানাগেছে, মুজাহিদপুর গ্রামের গাড়ি চালক জানু মিয়া ও মর্তুজ আলীর লোকজনের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে কয়েক দফা সংঘর্ষ ও নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে জানু মিয়া পক্ষের মামলায় কয়েকবার কারাভোগ করেছে মর্তুজ আলী। অবশেষে মারামারি মামলায় আদালত থেকে জামিনে এসে গত ২ জুন মর্তুজ আলী জানু মিয়ার গর্ভবতী স্ত্রী রুমি বেগমকে ধর্ষণের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে মারপিট করে তার আড়াই মাসের গর্ভজাত সন্তান নষ্ট করে দেয়। আহত নির্যাতিত গৃহবধূকে জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়। এ ঘটনায় নির্যাতিত গৃহবধূ রুমি বেগম বাদী হয়ে সুনামগঞ্জ আদালতে মর্তুজ আলী, আবদুল গফুর, জাহাঙ্গীর হোসেন, রানু মিয়া, তাজ উদ্দিন, মন্নান মিয়া সহ ৬ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। এদিকে-আদালতে মামলা দায়েরের পর থেকে আসামীদের হুমকিতে ভয়ে বাড়ি ছেড়ে বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন মামলার বাদী রুমি বেগম ও তার স্বামী জানু মিয়া। এসব ঘটনা নিস্পত্তির লক্ষে স্থানীয়ভাবে একাধিকবার চেষ্টা করেও আসামীদের অসহযোগিতার কারণে নিস্পত্তি হয়নি বলে স্থানীয়রা জানান। বর্তমানে নারী নির্যাতন মামলাটি জগন্নাথপুর থানায় তদন্তাধীন আছে।
এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জগন্নাথপুর থানার এসআই লুৎফুর রহমান বলেন, মামলার তদন্ত অব্যাহত আছে। তদন্তক্রমে আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। #

Top