আরিফ ইকবাল নূরের কবিতা– “স্বাধীন দেশে”

received_201877910703648.jpeg

——————
রাস্তার ধারে লাশটি কার?
একটি নারীর-এ কথা সত্য।
কে সে? কি তার পরিচয়
জানা নেই কারো!
এভাবে আরো কত প্রাণ দিতে হবে;
পরাধীনতার শৃঙ্গল পরে ভাসতে হবে?
তনু,নুসরাতের মতো আরো কত বোনের প্রাণ নিয়ে খেলা হবে?
মাজাদার মতো আরো কত নারী বাসে ধর্ষিত হবে?
তিন বছরের শিশুও কি নরপশুদের কাছ থেকে রেহায় পাবে না?

আমার বোনের সঠিক বিচার হবে কবে?
স্বাধীন দেশে আমার বোন পরাধীন কেন?
স্বাধীন দেশে চলছে প্রতিনিয়ত
ধর্ষণ, হত্যা-খুন-গুম,রাজনৈতিক হানাহানি,
কবে শেষ হবে নারীর আহাজারী?

রক্ত দিয়ে তো এঁকেছিলাম স্বপ্ন রাঙ্গা রবি,
অশ্রু দিয়ে গেথেঁছিলাম যুদ্ধ জয়ের ছবি।
জীবন দিয়ে অর্জন করেছি
মুক্ত স্বাধীন জাতীয় পতাকা।
যুদ্ধ করেছি স্বাধীনতার জন্য
আজ নারী পরাধীনতার শৃঙ্গলে আবদ্ধ কেন?

একটি সোনালী ভোরের প্রতীক্ষায়
বিনিদ্র রজনী কেটেছে র্দীঘ নয় মাস,
কোথায় গেল আজ সেই স্বাদের স্বাধীনতা?
মুক্তিযুদ্ধরা নতুন স্বপ্ন বুকে নিয়ে
স্বাধীনতা অর্জন করেছিল নিজেদের প্রাণ বিলিয়ে দিয়ে।
আজ সেই স্বাধীন দেশে অপরাধী অপরাধ করে
পার পেয়ে যায়,
নিরাপরাধী জেল খেটে মরে যায়।
ভাল কাজের নেই কোন মূল্য
খারাপ কাজের প্রসংশায় সবাই ব্যস্ত।
জ্ঞানী গুনীর নেই কোন কদর
সন্ত্রাত্রী সন্ত্রাস করে পায় সমাদর।
ভাল কাজকে তুচ্ছ করে
মন্দ লোককে উপাধি দিয়ে বরণ করে।

এভাবে চললে দেশের উপায় হবে কি যে
একথা ভেবে চক্ষু আমার ভিজে।
আমার স্বাধীন দেশটা আরো কতবার হবে কলঙ্গিত
আর কতদিন কাদঁবে দেশের জনগণ
পরাধীনতার শৃঙ্গলে আবদ্ধ মানুষের মতন।

সবাই ছোটছে এলোমেলো বন্ধ সব পথ
হাল-বিহীন জাহাজের মত হয়ে যাচ্ছে
আমাদের ভবিষ্যত।
বসে থাকার সময় নেই
সকলে মিলে চলো,
স্বাদের স্বাধীন দেশটাকে
ধর্ষণ মুক্ত করো।
————-
আরিফ ইকবাল নূর
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

Top