জগন্নাথপুর পৌর শহরে দীর্ঘ বাঁশের সাঁকো ॥ জন ভোগান্তি চরমে

1561145169706_poto-1.jpg

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি–
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর পৌর শহরের ৬নং ওয়ার্ডের ২টি গ্রামের নাগরিকদের চলাচলের একমাত্র ভরসা বাঁশের সাঁকো। যে কারণে জন ভোগান্তি চরমে পৌছেছে। জন ভোগান্তি লাঘবে সেতু নির্মাণে নেই কোন উদ্যোগ। তাই এখানে একটি সেতু নির্মাণের দাবিতে ফুসে উঠেছেন স্থানীয় ভূক্তভোগী জনতা।
২১ জুন শুক্রবার সরজমিনে দেখা যায়, জগন্নাথপুর পৌর শহরের জগন্নাথপুর ও হাসিমাবাদ গ্রামের মধ্য স্থানে নলজুর নদীতে নির্মিত দীর্ঘ প্রায় ২৫০ ফুট লম্বা বাঁশের সাঁকো যোগে চলাচল করছেন স্থানীয় গ্রামবাসীরা। এ সময় ভূক্তভোগী মাওলানা লায়েক আহমদ, আমির আলী, আলকাব আলী, মন্নান মিয়া সহ অনেকে বলেন, দেশ স্বাধীনের পর থেকে আমরা বাঁশের সাঁকো দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন চলাচল করছি। আমরা নামে পৌর নাগরিক হলেও বাস্তবে মনে হচ্ছে কোন দ্বীপের বাসিন্দা। একটি মাত্র সেতুর অভাবে আমাদের কষ্টের শেষ নেই। এক প্রশ্নের জবাবে মাওলানা লায়েক আহমদ বলেন, অন্য বছর আমরা গ্রামবাসীর উদ্যোগে এ নদীতে সাঁকো নির্মাণ করা হলেও এবার জগন্নাথপুর পৌরসভার উদ্যোগে নির্মাণ হয়েছে। এছাড়া অনেক সময় এ দীর্ঘ সাঁকো পারাপার হতে গিয়ে হাত ফসকে পানিতে পড়ে যান মানুষ। বিশেষ করে স্কুল-মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের বেশি বেকায়দায় পড়তে হয়। তারা বই ও বইয়ের ব্যাগ নিয়ে সাঁকো পারাপার হতে গিয়ে পানিতে পড়ে যাওয়ার ঘটনা প্রায়ই ঘটে।
এ ব্যাপারে ৬নং ওয়ার্ডের পৌর কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন মুন্না ও জগন্নাথপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র শফিকুল হক বলেন, গ্রামবাসীদের ভোগান্তি লাঘবে নলজুর নদীর এ স্থানে সেতু নির্মাণের জন্য ব্যক্তিগত ভাবে মাননীয় পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানের সাথে যোগাযোগ করেছি। আশা করছি মন্ত্রী মহোদয় সেতু নির্মাণে পদক্ষেপ নিবেন। #

Top