দক্ষিণ সুনামগঞ্জ পাগলা বাজারে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত-১, আহত-১৫

received_342339736430906.jpeg

মোঃ আবু সঈদ, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পাগলা বাজারে সিএনজি সরানোকে কেন্দ্র করে রায়পুর ও কান্দিগাও দু’গ্রামবাসীর মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে শাহানুর আলম (১৭) নামে দশম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্র নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছেন ১৫ জন।

আহতরা হলেন পশ্চিম পাগলা ইউনিয়নের কান্দিগাঁও গ্রামের আলী হোসেনের পক্ষের মৃত আব্দুল মতলিবের ছেলে মোঃ হাফিজুর রহমান (৩৫),মৃত সমছুৃ মিয়ার ছেলে তানিম আহমদ(৩০) ,মৃত সিরাজ উদ্দিনের ছেলে ছালেহ আহমদ(২৫) ও মৃত আরশ আলীর ছেলে আলী হোসেন(৩৫) এবং রায়পুর গ্রামের রাজন মিয়ার পক্ষের আঞ্জব আলীর ছেলে নাসির মিয়া (২২),মৃত মনাই মিয়ার ছেলে বুলু মিয়া(৫৪),আব্দুল আলীমের ন্ত্রী মোছাঃ আছমা বেগম(৩৫),আরব আলীর ছেলে মোঃ আক্তার হোসেন(২০),নিজাম উদ্দিনের ছেলে ছোটন মিয়া(১৬),নজর ইসলামের ছেলে মোঃ সোহেল মিয়া(২৫),মৃত আহমদ আলীর ছেলে রিয়াজ উদ্দিন (৫০),আঞ্জব আলীর ছেলে আসকর আলী (৩৫),মৃত মমিন ইসলামের ছেলে শাহ মোঃ ফরিদ মিয়া(৪৫)। আহতদের তাৎক্ষণিকভাবে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ কান্দিগাঁও গ্রামের মোঃ জিল্লুল হকের ছেলে জকি মিয়া (২২) কে আটক করেছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় উপজেলার পশ্চিম পাগলা ইউনিয়নের কান্দিগাঁও গ্রামের লেগুনা চালক আলী হোসেন ও রায়পুর গ্রামের মাছ ব্যবসায়ী রাজন মিয়া পাগলা বাজারে গাড়ি সরানো নিয়ে দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটিকে কেন্দ্র করে দু’গ্রামবাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পাগলা বাজারে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে রায়পুর গ্রামের বোরহান উদ্দিনের ছেলে শাহানুর আলমকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে নিহত হয়। সে সরকারী পাগলা হাইস্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণীর ছাত্র।
খবর পেয়ে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘন্টাব্যাপী চেষ্টা চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। এ ব্যপারে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হারুনুর রশিদ চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তাৎক্ষণিক খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং একজনকে আটক করে।

Top