সংবাদকর্মীরা স্বাধীনতা ভোগের পরিবর্তে হচ্ছেন নানাভাবে অপমান,অপদস্ত ও নির্যাতিত

544.jpg

মাসুদুর রহমান :

——————
সমাজ ও জাতি উন্নয়ন এবং অগ্রগতির ধারায় প্রতিনিয়ত যারা সংবাদ প্রকাশ করে সম্বৃদ্ধির পথে কাজ করছেন তারাই গণমাধ্যম কর্মী ও সাংবাদিক। ঝুঁকি নিয়ে পেশাগত দায়িত্ব পালন করেন সাংবাদিকরা। সব রকম দুর্নীতি, অনাচার ও নির্যাতনের খবর সাংবাদিকরা প্রকাশ করে বলেই তারা আজ নির্যাতিত। আজ সংবাদকর্মীরা স্বাধীনতা ভোগের পরিবর্তে হচ্ছেন নানাভাবে অপমান, অপদস্ত ও নির্যাতিত। তারপরও সাংবাদিকদের ঝুঁকিপূর্ণ এই ব্রত নিয়ে কাজ করতে হবে, কেননা সত্যের জন্য সব কিছু ত্যাগ করা কঠিন হলেও সাংবাদিকদের জন্য সম্ভব। সাংবাদিকরাই বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ বা সঠিক তথ্য উপস্থাপন করে সমাজের স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে কাজ করে। গণতন্ত্রের ভিত মজবুত করা ও সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য তাদের অবদান সত্যিই প্রশংসনীয়। সাংবাদিক ও সংবাদকর্মীরা দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে শুধু নিহত হয়েছেন, তা নয়। অনেকেই আছেন যারা মারাত্মক আহত হয়েছেন। অনেকে মিথ্যা মামলায় হয়রানির শিকার হয়ে কারাগারে দিন কাটিয়েছেন। আজ জাতির উন্নয়নের স্বার্থে কাজ করেও সাংবাদিক সমাজ চরম নিরাপত্তাহীনতায় জীবন কাটাচ্ছে। অন্যান্য পেশার মতো রাজনৈতিক কারণে সাংবাদিকরাও দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছে।সাংবাদিকদের প্রতিষ্ঠান কিংবা সংগঠনগুলো সাংবাদিকদের কল্যাণে ঠিকমতো কাজ করতে পারছে না। শারীরিক নিরাপত্তার অভাব তো আছেই, প্রতিষ্ঠানগুলোতে প্রভিডেন্ট ফান্ড বা গ্র্যাচুইটি দেয়া হয় না, চাকরির নিরাপত্তার অভাব, এসবের মধ্য দিয়েই নানান বাধা উপেক্ষা করে আমাদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে হয়। সাংবাদিকদের উপর হামলা-মামলা ও নির্যাতনের ঘটনা বেড়েই চলেছে। সাংবাদিকরা সবসময় ঘটনার তথ্য সংগ্রহ করে জনগণের সামনে সংবাদ তুলে ধরেন। আজ উল্টো সাংবাদিকরাই সংবাদের শিরোনাম হয়েছে। এ থেকে বেরিয়ে আসতে হলে সাংবাদিকদের ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাংবাদিক বান্ধব হওয়ার পরও দেশের প্রশাসনসহ সবক্ষেত্রে কিছু কিছু দুষ্কৃতকারী মানুষরূপী হায়ানা সাংবাদিকদের কাজে নানাভাবে নাজেহাল এবং পথ চলায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে আসছে। প্রভাবশালী রাজনৈতিক ব্যক্তি থেকে শুরু করে প্রশাসনের যারা অন্যায় বা দুর্নীতির সঙ্গে য্ক্তু সবার আক্রোশের শিকার হন মফস্বলের সাংবাদিকরা।এখন সাংবাদিক হত্যা বা শারীরিক নির্যাতন আছেই, পাশাপাশি মিথ্যা মামলা দেয়ার ঝুঁকি থাকে। শুধুমাত্র সাংবাদিকদের একক প্রচেষ্টা ও আগ্রহের কারণে সাংবাদিকতায় বস্তুনিষ্ঠতা এখনো বজায় আছে। সার্বিকভাবে সাংবাদিকতার পরিস্থিতি উন্নয়নে সাংবাদিক নেতারাও ভূমিকা রাখতে পারছেন না ।

লেখক-মাসুদুর রহমান।
সংবাদকর্মী ্

Top