রংপুরে দাফনের ১৬দিন পর আম ব্যবসায়ীর মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন

received_2483591541874050.jpeg

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর:
রংপুরে রেস্টুরেন্টের সামনে আম বিক্রির অপরাধে মারধরের শিকার হয়ে নিহত আম ব্যবসায়ী মানিক মিয়ার মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে।
আদালতের নির্দেশে দাফনের ১৬দিন পর বুধবার দুপুরে সদর উপজেলার পালিচড়া থেকে তার মরদেহ উত্তোলন করা হয়।
বিষয়টি নিশ্চিত করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কোতোয়ালি থানা পুলিশের এসআই সাজ্জাদ হোসেন জানান, মরদেহের ময়না তদন্তের জন্য রংপুর জুডিশিয়াল ম্যজিস্ট্রেট আদালতে আবেদন জানানো হয়। আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালতের নির্দেশে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসানের উপস্থিতিতে মরদেহ উত্তোলন করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে পাঠানো হয়েছে।
এসময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসানসহ রংপুর জেলা পুলিশের সদর থানার ওসি সাজেদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। মামলা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, নগরীর সিটি বাজার সংলগ্ন সিসিলি চাইনিজ রেস্টুরেন্টের সামনে মানিক মিয়া নামে এক আম ব্যবসায়ী বাইসাইকেলে করে আম বিক্রি করছিলেন।
গত ৩১ মে দুপুরে রেস্টুরেন্টের সামনে বসে আম বিক্রি করার অভিযোগে হোটেল মালিক আলতাফ হোসেন তাকে মারপিট করেন। এসময় আশপাশের লোকজন এসে মানিক মিয়াকে উদ্ধার করে তার বাড়ি সদর উপজেলার পালিচড়ায় পাঠিয়ে দেয়। পরদিন মানিক মিয়ার রক্তবমি শুরু হলে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে দুইদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর তিনি মারা যান।
এ ঘটনায় মানিক মিয়ার ভাই মাসুম মিয়া বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ গত বৃহস্পতিবার রাতে আলতাফ হোসেনকে তার রেস্টুরেন্ট থেকে গ্রেফতার করে।

Top