পেট্রাপোলে আটক বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ৩ কনস্টেবল অবশেষে মুক্ত।। কর্মচারী রুহুল কারাগারে

76194-1.jpg

মোঃ রাসেল ইসলাম,বেনাপোল(যশোর)প্রতিনিধি:

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ৩ কনস্টেবল ও এক কর্মচারীকে ২ লাখ বাংলাদেশী টাকাসহ সোমবার সকালে ভারতের পেট্রাপোল বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা আটক করেছে। দিনভর আটক থাকার পর বিকালে ইমিগ্রেশনের অফিসার ইনচার্জ আবুল বাসার বিএসএফ ক্যাম্পে গিয়ে নিজ জিম্মায় তাদের বাংলাদেশে ফেরত নিয়ে এসেছে।

বেনাপোল চেকপোষ্টের একাধিক ব্যক্তি বলেন, বহু অপকর্মের হোতা পুলিশ কনস্টেবল আজম সোমবার সকালে মহিলা কনস্টেবল তৃষা, রুমা ও ইমিগ্রেশনের (বেসরকারী কর্মচারী) কর্মচারী রুহুলকে সাথে নিয়ে ভারতের পেট্রাপোল অঞ্চলে যায়। সেখানে গিয়ে তারা ঘোরাঘুরি শেষে ফিরে আসার সময় ২ লাখ বাংলাদেশী হুন্ডির টাকা সাথে করে নিয়ে আসছিল। গেটে বিএসএফ সদস্যদের সন্দেহ হলে তাদের ডেকে নিয়ে ক্যাম্পে যায়। পরে তাদের শরীর তলাশী করে ২ লাখ বাংলাদেশী টাকা উদ্ধার করে। এঘটনায় বিএসএফ তাদের সকাল ১১ টা থেকে ক্যাম্পে বসিয়ে রাখে। দু‘দেশের উচ্চ পর্যায়ে ফোনালাপের পর বিকালে ইমিগ্রেশন ওসি পেট্রাপোল বিএসএফ ক্যাম্পে গিয়ে তাদের ফেরত নিয়ে আসেন।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের অফিসার ইনচার্জ আবুল বাসার বলেন, ইমিগ্রেশনের ৩ কনস্টেবল ফল ক্রয় করতে ভারতে গিয়েছিল। গেটে দায়িত্বরত বিএসএফ সদস্যরা তাদের ডেকে ক্যাম্পে নিয়ে যায়। পরে তাদের ছেড়ে দিয়েছে। তাদের কাছে হুন্ডির টাকা ছিল কি না আমার জানা নেই। এ ঘটনায় রুহুল নামে কেউ আটক আছে কি না আমি বলতে পারিনা।

Top