সাতক্ষীরায় বিএনপি নেতা শাহারুল ইসলামের বিরুদ্ধে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের অভিযোগ

Screenshot_2018-11-11-12-28-05-1.png

শেখ রিপন,
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি ঃ

টাকার প্রলোভন দেখিয়ে সাতক্ষীরা সদরের কুশখালী ইউনিয়নের ভাদড়া গ্রামে এক প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে কুশখালী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি শাহারুল ইসলাম(৫০)এর বিরুদ্ধে।
রোববার সকাল ৯টার দিকে ভাদড়ার মীরপাড়া এলাকায় শাহরুলের নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।
ওই প্রতিবন্ধী বলেন, আমি মাঠে ছাগল বাঁধতে গেলে শাহরুল আমার শ্বশুরের জোনের টাকা দেয়ার কথা বলে ঘরে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর গামছা দিয়ে মুখ বেঁধে আমার সাথে সে খারাপ কাজ করে। পরে আমি বিষয়টি বাড়ির লোকজনকে জানালে শাহরুলের বউসহ কয়েকজন আমাকে মারপিট করে।
স্থানীয় ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি হাসানুর রহমান বলেন, আমরা রাস্তায় কর্মসূচীর কাজ করছিলাম। ওই সময় ওই প্রতিবন্ধী মেয়েকে কাঁদতে দেখে জানতে চাইলে তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে সে আমাদের জানায়। এরপর আমরা প্রতিবাদ করলে স্থানীয় বিদেশ প্রবাসী মিন্টুসহ কয়েকজন আমাদের মারপিট করতে উদ্দত হয় এবং বেফাঁস কথাবার্তা বলে। এছাড়া আইনের আশ্রয় না নেওয়ার জন্য ভিকটিমের পরিবারকে ক্রমাগত হুমকি দিচ্ছে মিন্টুসহ স্থানীয় কিছু ব্যক্তি।
এদিকে মিন্টুর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, যা হয়েছে তা অনাকাঙ্ক্ষিত। এ বিষয়ে আপনাদের মাথা ঘামানোর দরকার নেই। আমরা স্থানীয়ভাবে বিষয়টির সমাধান করবো।
তবে ঘটনার পর অভিযুক্ত শাহারুল ইসলাম পলাতক থাকায় তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয় নি।
সাতক্ষীরা থানার এএসআই শামিম হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছি। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
উল্লেখ্য, ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূর স্বামীও মানষিক প্রতিবন্ধী, শ্বশুর ও শাশুড়ী বয়ঃবৃদ্ধ।

Top