আদমদীঘিত ব্যবসায়ী নিহত ঘটনায় ৪৭ দিনেও রহস্য উদঘাটন হয়নি

IMG_20190608_002947.jpg

মোঃ মোমিন খান, আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি ঃ

বগুড়ার আদমদীঘির দোগাছী গ্রামের নিহত পোল্ট্রি ব্যবসায়ী আরমান হোসেনের মৃত্যুর ৪৭ দিনেও রহস্য উদঘাটন হয়নি। তাকে অপহরণ করে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করে ডোবায় ফেলে রাখা হয়েছিল কিনা এনিয়ে চলছে নানা প্রশ্ন। এদিকে দীর্ঘদিনেও তার লাশের ময়না তদন্ত রির্পোট না আশা ও মৃত্যুর রহস্য উদঘাটন না হওয়ায় হতাশায় রয়েছে তার পরিবার।
জানা গেছে, আদমদীঘির দোগাছি গ্রামের আবু বক্কর ছিদ্দিকের ছেলে আরমান হোসেন একজন পোল্ট্রি ব্যবসায়ী। গত ২৫ এপ্রিল সকালে আরমান হোসেন পোল্ট্রি খামারে কাজ শেষে পশ্চিম সিংড়া ঢাকারোড নামকস্থানে আসার পর নিখোঁজ হয় এবং তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনও বন্ধ থাকে। এ ব্যাপারে গত ২৬ এপ্রিল আদমদীঘি থানায় আরমানের ভাই মকসুদুল আলম বিদ্যুত একটি জিটি করেন। এদিকে আরমান নিখোঁজের ২দিন পর গত ২৭ এপ্রিল সকালে কোমলা দোগাছি তার বাড়ী থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার দক্ষিনে রেললাইনের পার্শ্বে বেলতলি নামকস্থানে একিিট ডোবায় ভাসমান অবস্থায় আরমান হোসেনের লাশ জনতা দেখতে পায়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরন করেন। তদন্তকারি থানার উপ-পরিদর্শক মীর ফেরদৌস জানান, লাশের ভিসেরা পরীক্ষার জন্য মহাখালি পরীক্ষাগারে প্রেরন করা হয়েছে। ময়না তদন্ত রির্পোট পাওয়া গেলে পরবর্তি আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে

Top