জগন্নাথপুর হাসপাতালে পানের পিক ফেলতে বারন করা নিয়ে নার্স খোদেজাকে হয়রানী

IMG_20190603_015409.jpg

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি–
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগীর আত্মীয়কে পানের পিক ফেলতে বারন করা নিয়ে নার্স খোদেজা বেগমকে নানাভাবে হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে।
জানাগেছে, গত কয়েক দিন আগে জগন্নাথপুর উপজেলার মিরপুর ইউনিয়নের শ্রীরামসি গ্রামের আবদুর রব নামের এক ব্যক্তি তার সন্তান সম্ভাবা স্ত্রীকে নিয়ে জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। পরে সন্ধ্যার দিকে সুস্থ্যভাবে গর্ভবতীর ডেলিভারি করেন নার্স খোদেজা বেগম। কিছুক্ষণ পর নার্স খোদেজা বেগম এসে দেখতে পান রোগীর সাথে আসা এক মহিলা আত্মীয় পান খেয়ে পানের পিক হাসপাতালে ফেলে নোংরা করছেন। তা দেখে নার্স খোদেজা বেগম পানের পিক না ফেলতে বারন করেন। এ সময় রোগীর সাথে থাকা আরো ২টি ছেলে জগন্নাথপুর হাসপাতাল নিয়ে খারাপ মন্তব্য করে। এ সময় নার্স খোদেজা বেগম প্রতিবাদ করেন। এতে রোগী ও রোগীর আত্মীয়রা ক্ষুব্দ হয়ে নার্স খোদেজা বেগমের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ প্রদান সহ নানাভাবে হয়রানী করা হচ্ছে বলে অনেকে জানান। এছাড়া একটি চক্র নার্স খোদেজাকে জগন্নাথপুর থেকে সরানোর জন্য দীর্ঘদিন ধরে অপ চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে বলে নার্স খোদেজা বেগম স্বীকার বলেন আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। আমি কোন রোগীর কাছ টাকা-পয়সা নেইনি। এরপরও আমাকে নানাভাবে হয়রানী করা হচ্ছে। আমি এসব মিথ্যা ও সাজানো অভিযোগের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। #

Top