মাত্র তিন হাজার টাকায় বিদ্যুৎহীন ফ্রিজ

IMG_20190602_194713.png

ছাত্রজীবনে খুব মেধাবী ছিলেন না মানসুক। ফলে মাধ্যমিকের গণ্ডি পার হওয়ার আগেই ছিটকে পড়েন। পরিবারের বহু পুরনো মাটির পাত্র তৈরির ব্যবসায়ও আগ্রহ দেখাননি। পরে তিনি টালি (টাইল) উৎপাদনের দিকে গুরুত্ব দেন।

শেষে পাকাপাকিভাবে টালি তৈরির কাজে নিযুক্ত হন। এই টালি তৈরির সময়ই তার মাথায় আসে আইডিয়াটি। সেখান থেকেই তিনি মাটির ফ্রিজ বানানোর সিদ্ধান্ত নেন।

টালি তৈরি করতে গিয়েই জন্ম নেয় তার প্রতিষ্ঠান। যার নাম রাখা হয় ‘মিট্টিকুল’। যা মাটির সামগ্রী (রেফ্রিজারেটর, কুকার, ফিল্টার) তৈরির জন্য বিখ্যাত। তার প্রতিষ্ঠানে সাধারণ গ্রামীণ মানুষ ফ্রিজ পেতে পারেন মাত্র ৩ হাজার টাকায়।

মানসুক বলেন, ‘মাটির ফ্রিজ তৈরিতে ব্যবহার করা হয়েছে বেশকিছু বৈজ্ঞানিক ফর্মুলা। যা ঠান্ডা রাখবে ফ্রিজের ভেতরে থাকা খাদ্যসামগ্রী।’

প্রাচীন কালে মাটির পাত্রে খাবার রেখে তাপমাত্রা ঠিক রাখতেন মানুষ। কিন্তু সম্প্রতি প্রাচীন সেই ধারণাকে সামনে রেখে বিদ্যুৎহীন ফ্রিজ আবিষ্কার করেছেন ভারতের এই নাগরিক।

বিদ্যুৎহীন ফ্রিজের প্রধান উদ্যোক্তা ‘মানসুক প্রজাপতি’ পেশায় একজন শ্রমিক। তিনি দরিদ্রসীমার নিচে বসবাস করা মানুষের কথা চিন্তা করে মাটি দিয়ে এই ফ্রিজ তৈরি করেন। ফ্রিজটি বিদ্যুৎ ছাড়াই চলবে সব সময়।

বিদ্যুৎহীন এই ফ্রিজ এখন ভারত ছাড়িয়ে পৌঁছে গেছে বিদেশের মাটিতেও। আফ্রিকা, দুবাইয়ের মতো দেশেও সমাদৃত তার প্রতিষ্ঠানের সামগ্রী।

এনভি/ডেস্ক/এম.এ ওয়াহিদ

Top