একের পর এক দু:সংবাদ বাংলাদেশ শিবিরে।

received_294513801501924.jpeg

মুজিবুর রহমান, স্পোর্টস ডেস্ক;

আগামী ২ জুন বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচেই তাদের লড়তে হবে শক্তিশালী দক্ষিণ আপ্রিকার বিরুদ্ধে। এমন ম্যাচে সেরা দলটাকেই নামাতে হবে। তবে যা পরিস্থিতি তাতে মূল দল নামানো সম্ভব হবে কিনা সেটা নিয়েই শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

ভারতের সাথে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার সময় হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়েছিলেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। এরপর তাকে উঠিয়ে নেয়া হয় মাঠ থেকে। তার যে চোট তাতে অন্তত ১ সপ্তাহ লাগবে সাড়তে। তবে মাশরাফি বলছেন তিনি দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচেই খেলতে পারবেন।

ওই ম্যাচে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয় মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনকেও। এরপর থেকে তাকে আর অনুশীলনে দেখা যায়নি। ওই ম্যাচের আগে আরও একটি শঙ্কা দেখা দিয়েছিল। সেটা তামিম ইকবালকে নিয়ে। চোটের কারণে তাই ওই ম্যাচে মাঠে নামা হয়নি দেশসেরা ওপেনারের। তবে বিসিবির তরফ থেকে বলা হয়েছিল ২ জুনের আগেই সেরে উঠবেন তামিম।

আজ সকালে ওভালের নেটে শুরু করেছিলেন ব্যাটিং অনুশীলন। ২০-২৫ মিনিট হঠাৎই ফিজিওর সঙ্গে নেট থেকে বেরিয়ে এলেন। ড্রেসিংরুমে ফেরার পথে সতীর্থরা উদ্বেগভরা দৃষ্টিতে জানতে চাইলেন কী হয়েছে। তামিম দেখালেন বাঁ হাতের কব্জির নিচে লেগেছে।

টিম ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে এখনো তামিমের ব্যাপারে কিছু বলা হয়নি। দলের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসা পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ বলেন, এখনো রিপোর্ট পাইনি। পর্যবেক্ষণ করতে হবে। এখনই কিছু বলতে পারছি না। রিপোর্টের অপেক্ষায় আছি। এটা চিন্তার বিষয়। মাত্রই সে নেটে নেমেছিল।

তামিম তৃতীয় ব্যক্তি যে কিনা চোটে পড়লেন। নিজেদের প্রথম ম্যাচের আগে তিনজনের চোট ভাবাচ্ছে দলকে। যদিও তারা মাঠে নামেন তবে পুরো রিদমে খেলতে পারবেন কিনা সেটাই শঙ্কার।

Top