রাস্তার জন্য জমিদান করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন গুইমারার আবুল হাশেম মোল্লা

received_685881051841196.jpeg

স্টাফ রিপোর্টারঃ
প্রতিবেশী ২০টি (ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী) চাকমা পরিবারের যাতায়াতের সুবিধার্থে রাস্তার জন্য নিজের ক্রয়কৃত জমি দান করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন গুইমারা উপজেলার বড়পিলাক গ্রামের আবুল হাশেম মোল্লা। বৃহস্প্রতিবার(২৩মে) সন্ধায় ২নং হাফছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান চাইথোয়াই চৌধুরীকে নিজ বাড়ীতে ডেকে জমির লিখিত দান পত্র দলিল নিজ হাতে তুলে দেন দানকারী আবুল হাশেম মোল্লা।

গুইমারা উপজেলার হাফছড়ি ইউনিয়নের পথাছড়ার চাকমা পাড়ার ২০টি পরিবারের লোকজন,তাদের উৎপাদিত কৃষি পন্য পরিবহন করতে এবং বাড়ীতে যাতায়াত করতে রাস্তা না থাকায় এতদিনযাবৎ বিভিন্ন মানুষের জমির মধ্যদিয়ে চলাচল করতে হতো তাদের।যার কারনে অনেক সময় ঝসড়াঝাঁটিসহ নানা সমস্যায় পড়তে হতো এসব পরিবারগুলোর। এ সমস্যাথেকে পরিত্রাণ পেতে বহু চেষ্টা করেও সুফল পাচ্ছিল না দুর্ভোগের শিকার ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর লোকজন।তাদের দুর্ভোগে দুর করতে রাস্তা তৈরীর উদ্যোগ নেন স্থানীয় ইউপি সদস্য ও চেয়ারম্যান। কিন্তু জায়গা সমস্যার কারনে রাস্তা তৈরী আটকে যায়।ঠিক সেই সময় প্রতিবেশীদের রাস্তার জন্য নিজের ক্রয়কৃত জমির মধ্যভাগ দিয়ে ১০ শতক জমি বিনামূল্যে দান করে পার্বত্যচট্টগ্রাম বর্তমান পরিস্থিতিতে বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করল আবুল হাসেম মোল্লা।

রাস্তায় জন্য জমি দান করায় ভেজায় খুশি প্রতিবেশীরা।জানতে চাইলে আলী চাকমা ও ঘনপাল চাকমা বলেন,দীর্ঘ দিনের দুর্ভোগের অবসান হলো।জমিদানকারী আবুল হাশেম মোল্লাকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।আমরা পাহাড়ি বাঙ্গালী সকলে মিলে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মাধ্যমে ভাই ভাই হিসেবে বসবাস করব। দানপত্র গ্রহনকরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান চাইথোয়াই চৌধুরী বলেন জমিদানকারীকে ধন্যবাদ উনার কারনে এলাকাবাসীর দীর্ঘ দিনের সমস্যা সমাধান হলো।

এসময় উপস্হিত ছিলেন ইউপি সদস্য আবদুল মোতালেব আবুল হাশেম মোল্লার ছেলে মতি মিয়া,নূরুল ইসলাম,বকুল মিয়া,দ্বীন ইসলাম।

Top