প্রধানমন্ত্রীর সমীপে খোলা চিঠি

download-1-4.jpg

——————-
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা, আপনি বাংলাদেশের অমূল্য রতন। বর্তমানে আপনি ও বাংলাদেশের উন্নয়ন একটি অপটির সম্পূরক। আপনার হাত ধরেই বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের সহাসড়কে। সবাইকে তাক তাগিয়ে দিয়ে বাংলাদেশ খুব দ্রুতই উন্নয়নশীল দেশের কাতার থেকে বেরিয়ে এসেছে। বাংলাদেশ আজ সারা বিশ্বে উন্নত দেশ হিসাবে পরিচিত। আর এটা সম্ভব হয়েছে কেবল আপনার সুনিপুণ কৌশল ও বিচক্ষণ দক্ষতার কারণে। আপনি আপনার এই উন্নয়ন যাত্রায় নারী, পুরুষ, তরুণ, জুবা, বয়োজ্যেষ্ঠ কোনো ভেদাভেদ না করে সবাইকেই সম্পৃক্ত করছেন বলেই বাংলাদেশের উন্নয়নের আমূল চিত্র খুব দ্রুত পাল্টে গেছে বলেই মনে করি। আমরা তরুণ সম্প্রদায় দেশের উন্নয়ন কর্মকান্ডে আরো জোরালোভাবে সম্পৃক্ত হতে চাই।দেশকে নিয়ে আমাদের তরুণ সম্প্রদায়ের বিভিন্ন চিন্তা ভাবনা আপনার সমীপে পেশ করতে চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনার জ্ঞাতার্থে জানাতে চাই, আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের প্রায় ১০ টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ প্রথম সারির কলেজগুলোর দুই শতাধিকের অধিক শিক্ষার্থীরা মিলে “বাংলাদেশ তরুণ কলাম ফোরাম” নামে একটি সংগঠন করেছি। এই প্লাটফর্মের অধীনে আমরা দেশের উন্নয়ন, সম্ভাবনা, সমস্যা ও সমস্যা সমাধানে কী করণীয় দরকার ইত্যাদি বিষয়সহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে লেখালিখি করি, যে লেখাগুলো প্রতিনিয়ত বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত হয় এবং হচ্ছে। এবারের (২০১৯) অমর একুশে গ্রন্থমেলায় তরুণদের সম্মিলিত প্রয়াসে ” তারুণ্যের ভাবনা” নামে একটি বইও প্রকাশিত হয়েছে। যে বইয়ে দেশের উন্নয়ন, সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে অসংখ্য আর্টিকেল স্থান পেয়েছে। আমরা আমাদের এই ধ্যান-ধারণা, চিন্তা-চেতনাগুলো দেশের উন্নয়নে কাজে লাগাতে চাই। আমরা তরুণরা মনে করি, আমাদের চিন্তাভাবনাগুলো যদি কাজে লাগানো যায়, তাহলে দেশের উন্নয়ন আরো ত্বরান্বিত হবে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জানি না আমাদের এই কথাগুলো আদৌ আপনার কানে পৌঁছাবে কি-না। তবে আমরা মনে প্রাণে বিশ্বাস করি, আমাদের এই কথাগুলো যদি আপনি জানতে পারেন, তাহলে আপনি অবশ্যই আমাদেরকে সময় দিবেন। আপনার সাক্ষাৎ-এ দেশকে নিয়ে আমাদের বিভিন্ন চিন্তা-ভাবনা উপস্থাপন করতে পারবো। আমরা আপনার এই ডাকের অপেক্ষায় থাকলাম।

তরুণ কলামিস্ট, লেখক ও কবিদের পক্ষে
মো. জাহানুর ইসলাম
সভাপতি, বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরাম।

Top