স্ত্রীর মানসিক নির্যাতনে স্বামীর আত্মহত্যা

IMG_20190504_143347.jpg

শামীম ইকবাল চৌধুরী,নাইক্ষ্যংছড়ি(বান্দরবান)থেকে::

নাইক্ষ্যংছড়ি সদরে স্ত্রীর মানসিক নির্যাতনে স্বামী
প্রবাসী জয়নাল আবেদীনের ভাড়া বাসায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করার খবর পাওয়া গেছে। শনিবার (৪মে) ভোর রাতে উপজেলার সদর ইউনিয়নের মাদরাসা ঘোনা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সাইফুল ইসলাম ওরফে সোহেল (২০) ওই ইউনিয়নের প্রবাসী আব্দুল কাদেরের ছেলে।

এলাকা সূত্রে জানাযায়, সোহেল দিন মুজুরি শ্রমিকের কাজ করে আসছিলো। গত দেড়-দুই বছর আগে প্রেম নিবেদনে তার বিয়ে হয় ওই ইউনিয়নের রসুলপূর গ্রাম এলাকার আব্দু সাত্তার ওরফে সাত্তার বুড়ার কন্যা হামিদা বেগম (২৫)। স্বামী স্ত্রী দুই জনেই ভোটার হয়নি। দীর্ঘদিন ধরে সাংসারিক কলোহ হয়ে আসছিলো। স্বামী সোহেল এলাকার শান্ত-সৃষ্ট বলে এলাকাবাসী মূখে মূখে। তবে স্ত্রী হামিদা বেগম প্রতিনিয়ত স্বামীকে মানসিক নির্যাতন করে আসছিলো। এতে এলাকাবাসীর সন্দেহ স্ত্রীর মানসিক নির্যাতনের যন্ত্রণায় সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যার পদ বেঁচে নিয়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে। তবে ভাড়া বাসায় আত্মহত্যার পর বাসার পাশে যাতায়ত রাস্তায় লাশ হয়ে পড়ে থাকা অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ।
নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউপি সদস্য আরেফ উল্লাহ ছুট্ট আত্মহত্যার কথা নিশ্চিত করে জানান, দীর্ঘদিন ধরে স্বামী-স্ত্রী মধ্যে সাংসারিক কলোহ চলছিলো। তার স্ত্রী হামিদা বেগম (২৫) প্রায়ই তাকে গালমন্দ করে মানসিক নির্যাতন করত। এতে সে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে আত্মহত্যা করেছে বলে আমারা অনুমান করছি।

থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জায়েদ নুর জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্টের পর জানা যাবে। এ ব্যাপারে মামলার বিষয়াদি।
———————

Top