বহিরাগত, অছাত্র আসলে কারা?

59539159_437993300107959_3393591739473199104_n.jpg

ক্যাম্পাসে ইদানিং একটা শব্দ বেশি শোনা যায় সেটা হলো ‘বহিরাগত’। বিশেষ করে ডাকসু হওয়ার পর তা আরো বেশি শোনা যাচ্ছে, ডাকসুর ক্ষমতা বলে একটা কথা আছে না! সাধারনত হল গুলোতে শোনা যায় ১ম বর্ষ থেকে শুরু করে অনেক সিনিয়র শিক্ষার্থীরাও অভিযোগ তুলে যে, বহিরাগত কিংবা অছাত্রদের সিট দখল করার কারনে তারা তাদের কাঙ্ক্ষিত সিট পায় না। যার জন্যে তৈরি হয়েছে আবাসন সংকট।

বিশেষ করে ছেলেদের হল গুলোতে এ সমস্যা টা প্রকট। আবাসন সংকটের কারনেই জন্ম হয়েছে গণরুম নামক বিভীষিকা কিংবা বারান্দা ব্যবস্থার মত ভয়ংকর চিত্র। যেখানে বৃষ্টি দেখে সাধারন মানুষের খুশি হওয়ার কথা সেখানে বারান্দাবাসিদের ক্ষণ গুনতে হয় বৃষ্টি শেষের। বৃষ্টি টা স্রেফ একটা অভিশাপ।

অনেকেই বলে কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারে গিয়েও নাকি সিট পাওয়া যায় না। সব বি.সি. এস কিংবা চাকুরির বই, আর সেই বই পড়ুয়া দিয়ে ভর্তি। অনেকে বলে লাইব্রেরী ভবন ১০ তলা করা হোক। আর যাই বলা হোক সব সব সমস্যার মূলে ঐ বহিরাগত, অছাত্ররাই।

আসুন এখন একটু হিসাব মিলিয়ে দেখি, এই বহিরাগত কিংবা অছাত্র গুলো কারা! কাদের আমরা অছাত্র বলি। ধরুন, আপনি এখন ৩য় বর্ষের শেষের দিকে, মাত্র কোনো এলাকার ভাই ধরে লবিং করে রুমে একটা সিট পেলেন। ভাবলেন এবার পড়াশোনা করতে পারবেন। এটা ভাবতে ভাবতে, নিজেকে গুছাতেই অনার্স শেষ! তারপর মাষ্টার্স ত মাত্র ১.৫ বছর। ডিপার্টমেন্ট এর পড়াশোনা নিয়ে ব্যস্ত! সিজিপিএ ও তেমন ভালো না। মাস্টার্স শেষ! এখন আপনিও বহিরাগত কিংবা অছাত্র! কারন আপনার বৈধতা শেষ। কিন্তু কথা হলো আপনি হলে আপনার সিটে থাকলেন কত বছর! ১+১.৫=২.৫ বছর! যেখানে আপনার মিনিমাম ৫.৫ বছর থাকার কথা। তাহলে কি আপনি আপনার সিট ছাড়তে চাইবেন? নাকি অধিকার আদায় করে ছাড়বেন! মানে হলেই থেকে যাবেন!

মূলত সমস্যাটা শুরু হয় এখান থেকেই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যারা হলে থাকে আমি গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারি তাদের এক তৃতীয়াংশ’র ই বাহিরে থাকার সামর্থ নেই। কিন্তু আফসোসের বিষয় হলো যে শিক্ষা জীবনটা শুরু করার কথা ছিলো ৩ বছর আগে সেটা শুরু হলো ৩ বছর পর। আপনি ৩ বছর পর শুরু করেছেন বলে তো আর সময় অপেক্ষায় থাকবে না। সময় তো আপনাকে সাবেক বানিয়েই দিবে।

এদিকে ফ্যামিলির চাপ, চাকুরি নিতে হবে, আরো কত চাপ! এ দিক দিয়ে জুনিয়ররা আপনাকে অবৈধ সিট দখলদারি বলে গালি দিচ্ছে!
এখন প্রশ্ন হলো, এ দায়বার কার? বহিরাগত বা অছাত্র কারা? কেনো তারা অবৈধ সিট দখলদারি?

এ প্রশ্ন গুলোর উত্তর যখন আমরা খুঁজে পাবো এবং সঠিক পন্থায় সমাধান করতে পারবো তখনি দূর হবে হলের আবাসন সংকট, দূর হবে বহিরাগত। মুছে যাবে অছাত্রের সীল।

মোঃ তারেক মাসুম,
শিক্ষার্থী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

Top