জৈন্তাপুরে বেপরোয়া বাস নিয়ন্ত্রন হারিয়ে খাঁদে, নিহত আপন ২ বোন সহ আহত ১২ জন।

images-1.jpg

এম,এম,রুহেল জৈন্তাপুর।

সিলেট তামাবিল মহাসড়কের জৈন্তাপুর বৈঠাখাল এলাকায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২, আহত ১০।

বুধবার ১লা মে বুধবার দুপুর ১২ টায় সিলেট তামাবিল মহাসড়কের জৈন্তাপুর বৈঠাখাল নামক স্থানে জাফলং থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী দুটি মাইক্রোবাস প্রতিযোগিতা মাধ্যমে একে অপরকে অতিক্রম করতে গিয়ে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে একটি মাইক্রোবাস (সিলেট-জ-০৪-০০৯৯) দূর্ঘটনায় কবলিত হয়।

ঘটনাস্থলে ২শিশু নিহত হয় এবং ১০জন আহত হয়।

স্থানীয়রা এগিয়ে এসে আহতদের উদ্ধার করে জৈন্তাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরন করে। নিহতরা হল জৈন্তাপুর উপজেলার ফুলবাড়ী গ্রামের শওকত আলীর মেয়ে লুবনা বেগম(১২) ও ছোট বোন অহনা বেগম(৭)।

আহতরা হল গোলাপগঞ্জ উপজেলার মোঃ জাহিদ(২৮) ও সেলিনা বেগম(২৫), সদর সিলেটের নয়াগ্রামের শিফা বেগম(৩৫) ও তার ছেলে শরিফ আহমদ(১৩), নারায়নগঞ্জ জেলার সজিব আহমদ(২৫), নরসিংদী জেলার আলাল মিয়া(১৮), হবিগঞ্জ জেলার শিবলু মিয়া(৩০), জৈন্তাপুর উপজেলার ফুলবাড়ী গ্রামের সোহাগ আহমদ(৩), গোয়াইনঘাট উপজেলার মোহাম্মদপুর গ্রামের নাঈম মিয়া(১০) ও সাইফুল ইসলাম(২৬)।

আহতদের মধ্যে আশংঙ্কা জনক অবস্থায় সেলিনা, জাহিদ ও সাইফুলকে সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। ঘটনার পর পর স্থানীয় জনতা সড়ক অবরোধ করে রাখে।

এঘটনার সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল আহমদ ও জৈন্তাপুর মডেল থানার পুলিশ ও এলাকাবাসীর সহায়তায় রাস্তার অবরোধ তুলেনেন এবং নিহতদের লাশ উদ্ধার করে জৈন্তাপুর মডেল থানায় নিয়ে আসা হয়। এরির্পোট লেখা পর্যন্ত (৩.৩০মিনিট পর্যন্ত) নিহতের লাশ জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছে।

এবিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খাঁন মোঃ মাঈনুল জাকির বলেন- ঘটনার পর পর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর লোকজন ও পুলিশ সদস্যরা গিয়ে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করেন এবং সিলেট তামাবিল মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক করেন।

Top