সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে হলে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে হবেঃ ঢাবি উপার্চায

DSC_0504.jpg

সিনজাত রহমান সানি,ঢাবিঃ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে শিশু-কিশোর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান আজ (২০ এপ্রিল) শনিবার নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার ও সনদপত্র বিতরণ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা অনুষদ এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক নিসার হোসেনের সভাপতিত্বে ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মো. এনামউজ্জামান সঞ্চালনয় অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক ড.মো.অাখতারুজ্জামান ও আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক শেখ আফজাল হোসেন বক্তব্য রাখেন।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান শিশুদের উদ্দেশ্য করে বলেন, সুনাগরিক হিসেবে গড়ে ওঠার লক্ষ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে হবে।
নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধুর চারিত্রিক গুণাবলী ধারণ এবং তঁার আদর্শ অনুসরণ করতে হবে।

তিনি অারও বলেন,বঙ্গবন্ধু অত্যন্ত সময়ানুবর্তী ছিলেন, তিনি যথাসময়ে সঠিকভাবে সকল কাজ সম্পন্ন করতেন।

উল্লেখ্য, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে গত ১৭ মার্চ ২০১৯ ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের ক্যাফেটেরিয়ায় এই শিশু-কিশোর চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতায় মোট তিনটি গ্রুপে শতাধিক প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে। প্রত্যেক গ্রুপের সেরা ১০জন করে মোট ৩০জন প্রতিযোগীকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলো- ক বিভাগে মো. মুসফিক শাহরিয়ার, দিল জাফিরা জাকারিয়া, মোফাশ্বারা কানিজ, সাদমান হোসেন, মো. বখতিয়ার নাদিম, নিতুন বিশ্বাস, খন্দকার নাবিল আহমেদ, আবিয়াজ আলম চৌধুরী রাজ্য, মো. ইয়াসিন আরাফাত ও অপর্ণা সরকার। খ বিভাগে-কাসিতা নুসাইবা তাকি, সিদরাতুল মুনতাহা ইরিন, নুহাশ রহমান স্পর্শ, লুৎফুর নাহার (বর্ষা), নুসরাত জাহান, ফাতেমা তুজ জোহরা, ফারিয়া ইসলাম রাফি, রাইসা ইসলাম (জারা), সুমাইয়া আক্তার মারিয়া ও জারলিনা হাসান তিয়ানা। গ বিভাগে- বশির উল্লাহ, মাহিনুর বিনতে ওয়াদুদ, মেহেরুন নেসা, অনন্য চৌধুরী অর্পা, মাহিমা চৌধুরী (মৃত্তিকা), মো. জাভেদ হাওলাদার রনি, মুহাম্মদ উল্লাহ মাহি, সম্পা আক্তার, মো. আবীর ও রুমানা আলম নিশি।

Top