আদমদীঘিতে শ্রমিক মৃত্যু ঘটনার ৭৮দিন পর বাবা মেয়েসহ ১০জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা,গ্রেফতার-১

download-11.jpg

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি :
বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের আব্দুল বারী (২৩) নামের এক গৃহ নির্মান শ্রমিক রহস্যজনক মৃত্যুর দীর্ঘ ৭৮দিন পর তার পরকীয়ায় সাড়া না দেয়ায় তাকে খুনের অভিযোগে বড়বড়িয়া গ্রামের মনি বেগম (২২) তার বাবা ইয়াছিন আলী (৫০), ভাই নিহেল আলী (৩০), লক্ষীপুর গ্রামের আব্দুল কাদের ছেদ্দা (৫০) তার ভাই রুহুল আমিন (৪০)সহ ১০জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহতের মা আদমদীঘির লক্ষীপুর গ্রামের মকবুল হোসেনের স্ত্রী ছিরিতুন বেগম বাদী হয়ে বগুড়ার আদমদীঘির জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে এই মামলা দায়ের করলে আদালত ওসি আদমদীঘি থানাকে এজাহার হিসাবে গ্রহন করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দির্দেশ প্রদান করেন। গত বৃহস্পতিবার থানায় মামলাটি এজাহাভুক্ত ও ১নং আসামী মনি বেগমকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরন করে পুলিশ।
আদমদীঘি থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুল ইসলাম জানান, গত ৩০ জানুয়ারী দিবাগত রাতে অদমদীঘির লক্ষীপুর গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে গৃহ নির্মান শ্রমিক আব্দুল বারীকের পাশার্¦বর্তি বড়বড়িয়া গ্রামে একটি কবরস্থানে পার্শ্বে আালু ক্ষেত থেকে লাশ উদ্ধার করার পর সে বিষপানে মারা গেছে প্রাথমিক ভাবে এমন ধারনার প্রেক্ষিতে লাশের ময়না তদন্তে জন্য মর্গে প্রেরন করেন। এ ঘটনায় থানায় একটি ইউডি মামলা হয়। এ দিকে আব্দুল বারী ১নং আসামী মনি বেগমের পরকীয়া প্রেম প্রস্তাব প্রত্যাখান করার আব্দুল বারীকে ওইদিন আসামীরা পরস্পর যোগসাজশে খুন করে ফেলে রেখে যায় মর্ম্মে নিহতের মা ছিরিতুন বেগম দাবী করে মনি বেগম তার বাবাসহ ১০জনকে আসামী করে সম্প্রতি আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলাটি থানায় রেকর্ডভুক্ত করার পর মনি বেগমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর আসামীদের গ্রেফতার তৎপরতা চলছে।

Top