স্বরূপকাঠিতে সতিনের ছুড়ে মারা গরম পানিতে ঝলসে গেল গৃহবধূর শরীর।

received_655072981593160.jpeg

স্বরূপকাঠি প্রতিনিধি।।
স্বরূপকাঠিতে সতিনের ছুড়ে মারা গরম পানিতে ঝলসে গেছে হোসনেয়ারা বেগম (৪৭) নামের গৃহবধূর শরীর। সোমবার রাতে সুটিয়াকাঠি গ্রামের আবদুল হালিম খানের দ্বিতীয় স্ত্রী হোসনে আরা বেগমের ওপর গরম পানি ছুড়ে মারে সতিন ও তার সন্তানরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় হোসনে আরাকে বরিশাল শের- ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
চিকিৎসাধীন হোসনে আরা জানান,সে সুটিয়াকাঠি গ্রামের আবদুল হালিম খানের দ্বিতীয় স্ত্রী। সোমবার সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজ আদায় শেষে হোসনে আরা সোফায় বসে বিশ্রাম নিচ্ছিলেন। এ সময় তার সতিন বেবি বেগম, সতিনের মেজ ছেলে বেল্লাল, সেজ ছেলে রমজান ও বড় ছেলে রুহুলের স্ত্রী আইরিন বেগম তাকে মারধর করে শরীরে গরম পানি ঢেলে দিয়ে ঘরের দরজা আটকে দেয়। তারপর সতিন ও তার সহযোগীরা ঘরের দরজা আটকে বিকট শব্দে সাউন্ডবক্সে চালিয়ে রাখে। একপর্যায়ে প্রতিবেশীরা হোসনে আরার আর্তচিৎকার শুনে ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. আসাদুজ্জামান জানান, হোসনে আরার শরীরের ৩০ শতাংশ পুড়ে গেছে।

Top