আশিক আবদুল্লাহকে সন্ত্রাসীদের গড ফাদার বলায় জাপা নেতা গ্রেফতার

received_2273293512941328.png

রুবেল হোসাইন, উজিরপুর প্রতিনিধি,বরিশাল।

বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমপি আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ’র ছেলে আশিক আবদুল্লাহকে ‘সন্ত্রাসীদের গডফাদার’ বলে মন্তব্য করায় মহসিন আলী সংগ্রাম (৩৮) নামে জাতীয় পার্টির এক নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার বিকেলে গৌরনদীর উত্তর বিজয়পুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতার মহসিন আলী গৌরনদী উপজেলা জাতীয় পার্টির সসদ্য এবং গৌরনদীর উত্তর বিজয়পুর এলাকার হাকিম সিকদারের ছেলে।

এর আগে সকালে মহসিন আলীর আপন বড় ভাই যুবলীগ নেতা সোহেল সিকদার বাদী হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি দায়ের করেন।

অন্যদিকে আশিক আবদুল্লাহ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক (মন্ত্রী পদমর্যাদা) আবুল হাসানাত আবদুল্লাহর ছেলে এবং বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহর ছেট ভাই।

আসামির বড় ভাই হাকিম সরদার মামলার আরজিতে উল্লেখ করেন, গত ৪ এপ্রিল স্থানীয় যুবলীগ নেতা মো. সাইদুল ইসলাম তার ফেসবুক আইডি থেকে আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ ও তার ছোট ছেলে আশিক আবদুল্লাহর ছবিসহ একটি পোস্ট দেন। ওই পোস্টে গত ৬ এপ্রিল মন্তব্য করেন জাতীয় পার্টির নেতা মো. মহসিন আলী সংগ্রাম। মন্তব্যে আশিক আবদুল্লাহকে ‘সন্ত্রাসীদের গডফাদার’ বলে উল্লেখ করেন তিনি এ ঘটনার পর স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

হাকিম সরদার মামলার আরজিতে আরও উল্লেখ করেন, আশিক আব্দুল্লাহর ছবির পোস্টে জঘন্যতম মন্তব্যের কারণে আশিক আব্দুল্লাহর ১০ কোটি টাকার মানহানি ঘটেছে। মন্তব্যের ঘটনায় মহসিনকে তিরস্কার করলে সে মন্তব্যটি ডিলেট করে দেয়। ছোট ভাই মহসিনের এমন কর্মকাণ্ডে শান্তি শৃঙ্খলা বিঘ্ন ঘটার আশঙ্কায় বাদী মামলাটি দায়ের করেছেন বলে আরজিতে উল্লেখ করেন।

গৌরনদী থানা পুলিশের সেকেন্ড অফিসার এসআই মো. তৌহিদুজ্জামান নিউজ ভিশনকে জানান, সকালে জাতীয় পার্টির উপজেলা শাখার সদস্য মো. মহসিন আলী সংগ্রামকে আসামি করে তার বড় ভাই সাহেল সিকদার বাদী হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি দায়ের করেন। বিকেলে উত্তর বিজয়পুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে
ওই মামলায় মহসিন আলী সংগ্রামকে গ্রেফতার করা হয়।

Top