নওগাঁর আত্রাইয়ে বারুনী স্নানে শত শত পূণ্যার্থীর মিলন মেলা

56355308_304968163531800_4036411652055236608_n.jpg

আলহাজ্ব বুলবুল চৌধুরী, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ

নওগাঁর আত্রাই উপজেলার মহাদিঘীর বারুনীতলা ও বলরামচক নামক স্থানে আত্রাই নদীর তীরে ঐতিহ্যবাহী শতবর্ষী বারুনী স্নান অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে বারুনী পূজা ও বারুনী স্নান এর মধ্য দিয়ে মূল আনুঠানিকতা শুরু হয়ে দুপুর পর্যন্ত চলে এ স্নান উৎসব। উপজেলার বারুণীতলা ও আত্রাই, রাণীনগর, বাগমারা তিন উপজেলার ৫২টি গ্রাম নিয়ে গঠিত বলরামচক কেন্দ্রীয় মহাশ্মাশন প্রাঙ্গণে যথারীতি ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে শত শত পূণ্যার্থী নারী-পুরুষ এ স্নানোৎসবে অংশগ্রহণ করেন।

এদিকে এ স্নানোৎসবকে ঘিরে মঙ্গলবার দিনব্যাপী উপজেলার বারুনীতলা ও বলরামচকে মেলা শুরু হয়েছে। খেলনা, প্রসাধনী, সাজসজ্জার নানা দোকান, কাঠ, বেত, মাটি, লোহার তৈরি আসবাবপত্রসহ গৃহকাজে ব্যবহারযোগ্য সামগ্রীর দোকান, মিষ্টি, খৈই, সাজ, বাতাসাসহ নানা ধরনের খাদ্য সামগ্রীর দোকানও বসেছে এ মেলায়।

এব্যাপারে বলরামচক মেলা উদযাপন কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় ইউপি সদস্য স্বপন কুমার শাহ জানান, শত শত বছর ধরে এ বারুনী স্নান ও মেলা আত্রাই নদীর তীরে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। এ উৎসব হিন্দু ধর্মালম্বীদের হলেও মেলাকে ঘিরে হিন্দু মুসলমানদের সৌহার্দ্যপূর্ণ মিলন মেলায় পরিণত হয়।

এ বিষয়ে মেলা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক অনিল চন্দ্র সরকার জানান, মঙ্গলবার সকাল থেকে শুরু হয়ে বেলা ১২টা পর্যন্ত গঙ্গা স্নান চলে। স্নান করতে আসা প্রত্যেক পূণ্যার্থীদের মাঝে প্রসাদ বিতরণ করা হয়। এছাড়া দূরদুরান্ত থেকে আসা পূণ্যার্থীদের জন্য সব ধরণের সুব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

আত্রাই থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোবারক হোসেন গঙ্গা স্নান ও মেলাকে ঘিরে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থির ব্যাপারে জানান, বারুনী স্নান উৎসব ও মেলা আত্রাই উপজেলার হিন্দু সম্প্রদায়ের একটি ঐতিহ্যবাহী উৎসব। এ মেলাকে ঘিরে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। আনন্দঘন পরিবেশে মেলায় আসা লোকজনের নিরাপত্তার জন্য সেচ্ছাসেবক, পুলিশ ও গ্রাম পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আশা করছি প্রতি বছরের ন্যায় এবারও মেলাতে কোন আপত্তিকর ঘটনা ঘটবে না।

উল্লেখ্য, গঙ্গা স্নানের অর্জিত পাপ ক্ষয় হয় এই বিশ্বাসে আত্মবিশ্বাসী হয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা প্রতিবছর এই পূণ্য তিথিতে গঙ্গা স্নান করে থাকেন।

Top