এই রাব্বিকেই দলে চেয়েছিল বাংলাদেশ।

IMG_20190330_205653.jpg

স্টাফ রিপোর্টার:
বাংলাদেশ দল খারাপ করলে দোষটা কারণে-অকারণে ঘরোয়া ক্রিকেটের ওপর চাপে। উঠে আসে অভ্যাসের বিষয়টি। অনেকবার শোনা গেছে টি-২০ ক্রিকেটে ভালো না করার কারণ ঘরোয়া ক্রিকেটে অভ্যাস না থাকা। টেস্টে খারাপের কারণ যেমন ধরা হয় ঘরোয়া ক্রিকেটের কাঠামো। তেমনি বড় রান তাড়া করার ব্যাপারেও অভ্যাস না থাকার বিষয়টি উঠে আসে। কিন্তু ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে এবার রান চেজ করার দারুণ এক ম্যাচ দেখা গেলো। ব্রাদার্স ইউনিয়নের করা ৩৩০ রানও সহজে পেরিয়ে গেলো প্রাইম ব্যাংক। তুলে নিলো বড় জয়। দলের হয়ে দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেছেন ফজলে মাহমুদ রাব্বি। যে রাব্বি ক’দিন আগে ডাক পেয়েছিলেন বাংলাদেশ দলে। কিন্তু ভালো করতে না পারায় দুই ম্যাচ খেলেই দলের বাইরে চলে যান। তবে দারুণ এই ইনিংস খেলেও পরাজিত দলে রাব্বি। প্রথমে ব্যাট করে ২ উইকেট হারিয়ে ৩৩০ রান করে ব্রার্দাস। দলের হয়ে পুরোপুরি একশ’ রানের ইনিংস খেলেন মিজানুর রহমান। পরে ফজলে রাব্বি ১৪৭ বলে ১৪৯ রানের হার না মানা দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন। এছাড়া বাংলাদেশ জাতীয় দলের দরজায় কড়া নাড়া ইয়াসির আলী খেলেন ৩৭ বলে ৬১ রানের ঝড়ো এক ইনিংস। প্রাইম ব্যাংকের হয়ে অবশ্য কেউ সেঞ্চুরি করেননি। তবে দলীয় প্রয়াসে সহজ জয় পেয়েছে তারা। হাতে সাত বল রেখে লক্ষ্য পেরিয়ে যায় প্রাইম ব্যাংক। দলের হয়ে আনামুল খেলেন ৫৪ রানের ইনিংস। ঈশ্বরাম করেন ৯০ রান। আল আমিন জুনিয়র ৫২ এবং অলক কাপালি খেলেন ৮২ রানের ইনিংস। তাতেই ৫ উইকেটের জয় তুলে নেয় প্রাইম ব্যাংক। দিনের অন্য ম্যাচে বিকেএসপি এবং শাইনপুকুরের ম্যাচ টাই হয়েছে। প্রথমে ব্যাট করে বিকেএসপি ৮ উইকেট হারিয়ে ২২২ রান তোলে। শাইনপুকুরের ইনিংস থামে ৯ উইকেট ওই ২২২ রানে। অন্য ম্যাচে উত্তরা স্পোটিং ক্লাবকে ১৯৩ রানের লক্ষ্য দেওয়া মোহামেডান ৭ উইকেটে হেরেছে। উত্তরা স্পোটিং ক্লাবের হয়ে তানজিদ হাসান ১০১ রান করেন।

Top