“লুকোচুরি” গানের শুটিং এ শিল্পি গৌরব হোসেন

received_279088049674427.jpeg

——-
বাংলাদেশ টেলিভিশন আয়োজিত জাতীয় শিশু শিল্পী পুরস্কার প্রতিযোগিতা- ২০০৩ ও ২০০৪ এ প্রথম স্থান লাভ করেন শিল্পী গৌরব হোসেন । ২০০৪ সালে শিশু একাডেমি কর্তৃক শেষ্ঠ শিশু শিল্পী নির্বাচিত হন। এরপর একে একে বিভিন্ন প্রতিযোগীতায় সফলতার সাথে প্রথম স্থান লাভ করেন। গৌরব হোসেন একাধারে রবীন্দ্র, নজরুল, রজনীকান্ত, দেশের গান, ফোক, পল্লীগীতি, আধুনিক গান এবং উচ্চাঙ্গ সংগীতের চর্চা করেন। দীর্ঘ ৫ বছরের বিরতির পর চ্যানেল আই সেরা কন্ঠ-২০০৮ এর মাধ্যমে প্রতাবর্তন ঘটে এই উদীয়মান শিল্পীর। এসময় জীবন্ত কিংবদন্তী শিল্পী রুনা লায়লা ও সাবিনা ইয়াসমিনকে তার গায়কি দিয়ে মনোমুগ্ধ করেন গৌরব হোসেন। গৌরব বলেন “আমাকে রুনা লায়না ম্যাডাম তার খাবার প্লেট থেকে একপিচ মাংস তুলে খাইয়ে দিয়ে বললেন- গৌরব তুই তো দেশের গৌরব। তোর কন্ঠে আমার প্রিয় শিল্পী মেহেদী হাসান, মোহাম্মদ রফি এবং সনু নিগামের দারুণ ছোঁয়া আছে। তুই চর্চা চালিয়ে যাবি আমি তোর সাথে গাইবো।”
তিনি ৬০০ এর অধিক গান রচনা করেছেন। বর্তমানে তানভীর হাসান পরিচালিত মধ্যবিত্ত সিনেমায় প্লে-ব্যাক করছেন। গৌরবের সাথে কথা বলে জানা যায় খুব শীঘ্রই বাংলাদেশের স্বনামধন্য মিউজিক কোম্পানি সিডি চয়েসের ব্যানারে তার প্রথম মিউজিক ভিডিও “লুকোচুরি” শিরোনামে গানটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে। গানটি রচনা করেছেন আরেফিন মোস্তফা সুর করেছেন শিল্পী গৌরব হোসেন সংগীত আয়োজনে সালমান সাদিক সাইফ। ভিডিওটি ধারন করা হয় কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে। মিউজিক ভিডিওটিতে গৌরবের সাথে মডেল হিসেবে ছিলেন গ্লামারগার্ল মিস ওয়ার্ল্ড খ্যাত জাহারা মিতু। তিনি বলেন, “সহশিল্পী হিসেবে গৌরব ভাই খুবই সহযোগিতাপূর্ণ। একজন সংগীত শিল্পী হয়েও অভিনয়ে নিজেকে এতো সাবলীল ভাবে মেলে ধরবেন তা চিন্তা করতেও পারিনি। আশাকরি তিনি সেরাদের সেরা হয়ে উঠবেন।” শিল্পী গৌরব দেশবাসীর কাছে দোয়াপ্রার্থী এবং সঙ্গীতের মাধ্যমে তিনি দেশের সেবা করতে চান।

এনভি/ডেস্ক/ইলিয়াস

Top