‘গৃহকর্মী নিয়োগে সতর্কতা ‘–এ.এম জিয়া হাবীব আহ্সান

Zia-Habib-Pic.jpg

জেনে নিন আপনার যত অধিকার- ০৩
——————————————–

আপনি আইন জানুন বা না জানুন আইন ধরে নেয় যে সকলেই আইন জানে । আপনি অপরাধ করে এটা যে অপরাধ তা জানতাম না, তা বললে কি সাজা থেকে মাফ পাওয়া যায় ? নিশ্চয় উত্তর হবে- না । এছাড়াও আমরা অনেকে জানি না আইনে আমাদের কি অধিকার আছে । অথচ অধিকার সচেতনতা একটি সভ্য জাতির মূল প্রতিপাদ্য । আইন সচেনতা সৃষ্টির জন্য আজ এখানে আলোচনা করবো- গৃহকর্মী নিয়োগ করার সময় কি বিশেষ সর্তকতা অবলম্বন করতে হয় ? বাড়ির কাজের জন্য গৃহপরিচারিকা বা গৃহকর্মী হিসেবে ছেলে বা মেয়ে রাখার আগে তার এবং তার পরিবার সম্পর্কে যতটা সম্ভব বিস্তারিত খোঁজ খবর জেনে নিন। তাকে কাজে নিযুক্ত করার সময় একটি পাসপোর্ট সাইজ ছবি তুলে নিজের কাছে রাখুন এবং তার ছবি ও নাম ঠিকানা দিয়ে নিকটস্থ থানায় জিডি করুন। প্রয়োজনে তার বাড়ীতে লোক পাঠিয়ে খোঁজ নিন। গৃহকর্মী ব্যতীত বাসার অন্য কেউ হারিয়ে গেল কি করতে হবে তাও জানা দরকার । প্রায়ই পরিবারের বয়স্ক কোন ব্যক্তি কিংবা শিশু অথবা প্রতিবন্ধী সদস্য এবং কাজের ছেলে বা মেয়ে নিখোঁজ হবার খবর পত্রিকায় ছাপা হয়। এ ধরনের কোন নিখোঁজ বা হারিয়ে যাওয়ার ঘটনা যদি আপনার পরিবারে ঘটে সেক্ষেত্রে সঙ্গে সঙ্গে নিকটস্থ থানায় আগে একটি জিডি বা সাধারণ ডায়েরি করবেন। এরপর কোন জাতীয় অথবা স্থানীয় পত্রিকায় হারানো বিজ্ঞাপন দেবেন। এলাকায় মাইকিং করতে ভুলবেন না। একইভাবে যদি মূল্যবান দলিল পত্রাদি হারিয়ে যায় বা মূল্যবান কাগজ পত্র হারিয়ে যায় তখন কি করতে হবে? মূল্যবান কাগজপত্র, দলিলাদি হারিয়ে গেলে প্রথমেই নিকটস্থ থানায় একটি জিডি বা সাধারণ ডায়েরি করতে হবে। এরপর পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিবেন, যাতে এসকল মূল্যবান কাগজপত্র কেউ পেলে ফিরিয়ে দিতে পারে। এছাড়াও ভবিষ্যতে আপনার আইনগত ভিত্তি শক্ত থাকবে। কারণ এই দলিল বা কাগজপত্র না থাকায় আপনি বিপদে পড়তে পারেন। যে কাগজ বা দলিল হারিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বরাবর আবার নতুন করে সেই কাগজপত্র বা দলিল প্রদানের আবেদন জানাতে পারবেন এই ভিত্তির কারণে। যদি কেউ কাউকে জোর করে বা ইচ্ছার বিরুদ্ধে সাদা কাগজে বা লিখিত বা সাদা ষ্ট্যাম্প পেপারে স্বাক্ষর করিয়ে নেয়, সে ক্ষেত্রে করনীয় কি ? কেউ যদি জোর করে বা ইচ্ছার বিরুদ্ধে সাদা কাগজে বা লিখিত বা সাদা স্ট্যাম্প পেপারে স্বাক্ষর করিয়ে নেয়, সেক্ষেত্রেও বিষয়টি অবগত করার জন্য যত তাড়াতাড়ি সম্ভব স্থানীয় থানায় জিডি করতে হবে এবং উদ্ধারের জন্য আদালতের আশ্রয় নিতে হবে। এ ব্যাপারে ফৌজদারী কার্যবিধির ৪৪ ধারায়ও বিজ্ঞ আদালতে সংবাদের দরখাস্ত দায়ের করা যায় । পরবর্তী সংখ্যায় নাগরিক অধিকার ও আইন আদালত নিয়ে নিয়মিত আলোচনা করার আশা রাখি ।
(চলবে)
লেখকঃ আইনজীবী,কলামিস্ট,মানবাধিকার ও সুশাসন কর্মী।

Top