কাহালু উপজেলা মাদ্রাসা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মোঃ শফিউল্লাহ লোটাস

Abdul-Hamid-Md-Sofullah-Lotus.jpg

কাহালু (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ

এবছর কাহালু উপজেলায় মাদ্রাসা পর্যায়ে কাহালু উপজেলার শ্রেষ্ঠ শ্রেনী শিক্ষক হলেন কাহালু সিদ্দিকিয়া ফাজিল ডিগ্রী মাদরাসার সহকারী শিক্ষক(ICT) আব্দুল হামিদ মোঃ শফিউল্লাহ(লোটাস)। প্রতি বছরের ন্যায় এবছরও শিক্ষা সংক্রান্ত সার্বিক বিষয় বিবেচনা করে মাদ্রাসা, স্কুল ও কলেজ এই তিনিটি কাটাগরিতে ৩ জনকে শ্রেষ্ঠ শ্রেনী শিক্ষক নির্বাচন করা হয়। উপজেলার মাদরাসা শিক্ষকদের মধ্যে আব্দুল হামিদ মোঃ শফিউল্লাহ(লোটাস) কে এবছর মাদরাসা ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠ শ্রেনী শিক্ষক নির্বাচন করা হয় বলে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ শফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
মোঃ শফিউল্লাহ(লোটাস)১৯৭৫ সালের ২ ফেব্রুয়ারী কাহালু উপজেলার মোহারাবানী গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। বর্তমানে তিনি বাবা-মার সাথে কাহালু মাষ্টারপাড়ায় বসবাস করেন। বাবা মোঃ বছির উদ্দীন এবং মা মোছাঃ উম্মে কুলছুম উভয়ই অবসরপ্রাপ্ত সরকারী চাকুরে। তিনি ১৯৯২ সালে কাহালু উচ্চ বিদ্যালয় হতে এস.এস.সি পাশ করেন এবং সরকারী আযিযুল হক কলেজ হতে ২০০০ সালে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতোকত্তোর ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি ২০০৭ সালে শিক্ষা বিষয়ে মাষ্টার্স(এম.এড) ডিগ্রী অর্জন করেন। পরবর্তিতে তিনি আইসিটি বিষয়ে পোষ্ট গ্রাজুয়েট ডিপ্লোমা(PGD in ICT) সমাপ্ত করেন। পাশাপাশি তিনি নিজ উদ্দোগে চাকুরীর ফাকে অবসর সময়ে ওয়েব ডিজাইন, গ্রাফিক্স ডিজাইন. ফ্রল্যান্সিং সহ বিভিন্ন কোর্স সম্পন্ন করেন। অনলাইন পরীক্ষা নিয়ে তার একটি ব্লগ সাইট www.examfall.blogspot.com এখানে তিনি বিভিন্ন বিষয়ের অধ্যায় ভিত্তিক প্রশ্ন সাজিয়ে রেখেছেন। এখানে ছাত্রছাত্রীরা তাদের মেধাকে শানিত কারার জন্য পরীক্ষা দিতে পারবে। পরীক্ষা সমাপ্তির সংগে সংগে পরীক্ষার্থীরা তাদের ফলাফল জানতে পরবে সেই সাথে তাদের দেওয়া ভূল উত্তরের সঠিক উত্তর কি হবে তাহাও জানতে পারবে। এ পরীক্ষা কম্পউটার,ল্যাপটপ এমনকি এ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনের সাহায্যে দেওয়া যাবে। তবে ইন্টারনেটে সংযুক্ত থেকে পরিক্ষা দিতে হবে।
মোঃ শফিউল্লাহ(লোটাস)২০০১ সালে কাহালু সিদ্দিকিয়া ফাজিল ডিগ্রী মাদরাসায় সহকারী শিক্ষক(ICT)পদে চাকুরিতে যোগদান করে নিষ্ঠার সাথে শিক্ষকতা পেষায় কর্মরত আছেন। আইসিটিতে দক্ষ শিক্ষক হিসাবে কাহালু উপজেলায় তার পরিচিতি আছে। এবছর তিনি উপজেলার মাদরাসা সমুহের মধ্যে শ্রেষ্ঠ শিক্ষকের স্বীকৃতি পেলেন। শ্রেষ্ঠ শিক্ষকের এ স্বীকৃতি পাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান একজন শিক্ষক হিসেবে আমি সব সময় নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করি, তবে এ স্বীকৃতি আমার দায়িত্ববোধকে আরো বাড়িয়ে দেবে ইনশাহ্ আল্লাহ।

Top