মিয়ানমারে সাড়ে নয় বছর সাজা শেষে ফিরেছে ৪ বাংলাদেশি

IMG-a2c146f9c6dd343c25ef6bb5aa31ac26-V.jpg

ফরহাদ আমিন::
মিয়ানমারের কারাগারে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা শেষ হওয়া চারজন বাংলাদেশিকে ফেরত দিয়েছে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ। (আজ) গতকাল বুধবার পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবির) কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
তারা হলেন-টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নাজিরপাড়ার মৃত হোসাইন আহমদের ছেলে মোহাম্মদ জসিম (৪৪), আব্দুল গফুরের ছেলে মোহাম্মদ ইলিয়াছ (২৯), একই ইউনিয়নের মৌলভীপাড়ার আবুল কালামের আজগর আলী (৩৯) এবং সুলতান আহমদের ছেলে সাব্বির আহমেদ (৩৬)। এ তথ্যাটি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ ২ বিজিবির ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর শরীফুল ইসলাম জোমাদ্দার।
তিনি বলেন,সকালে আমার নেতৃত্বে ১১ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল মিয়ানমারে পৌঁছানোর পর মংডু শহরে ১ নম্বর এন্ট্রি পয়েন্ট ইমিগ্রেশন অ্যান্ড ন্যাশনাল রেজিস্ট্রেশন ডিপার্টমেন্ট অভিবাসনের সম্মেলন কক্ষে উভয় দেশের মধ্যে এ পতাকা বৈঠক অনুষ্টিত হয়। এ বৈঠকে ৮ সদস্যের মিয়ানমার প্রতিনিধি দলের পক্ষে মংডু অভিবাসন বিভাগের কর্মকর্তা সহকারি পরিচালক ইউ থং টুন অং নেতৃত্বে দেন। এ পতাকা বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন-কক্সবাজারের জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি সহকারি কমিশনার ভূমি টেকনাফ প্রণয় চাকমা, পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি পরির্দশক (তদন্ত) এবিএসএম দোহা, এসবি পরিদর্শক মিজানুর রহমান প্রমূখ। প্রায় দেড় ঘন্টা বৈঠক শেষে দুপুর দেড়টার দিকে প্রতিনিধি দল স্পিডবোট যোগে টেকনাফ ট্রানজিট জেটিঘাটে আসেন। এ সময় ফেরত আসা চারজন বলেন, ২০০৮ সালের শেষে দিকে নাফনদী থেকে তাদের ধরে নিয়ে গিয়েছিল সেদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্যরা। পরে বিভিন্ন মেয়াদে আমাদের সাজা দেন। এরমধ্যে সাজার মেয়াদ শেষ হলে বিজিবির প্রচেষ্টায় স্বদেশে ফিরতে পারেছি।
টেকনাফ ২ বিজিবির ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর শরীফুল ইসলাম জোমাদ্দার বলেন, আজগর আলী ও সাব্বির আহমদের (দুজনের) ২৫ বছর ও অপর দুজনের মোহাম্মদ জসিম ও মোহাম্মদ ইলিয়াছের ২১বছর করে সাজা হয়েছিল। এরমধ্যে তারা সাড়ে নয়বছর সাজা শেষ করে (আজ) বুধবার ফিরেছে। স্বরাস্ট্রমন্ত্রণালয় ও পররাস্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুমতি পাওয়ার পর এ চারজনকে ফেরত আনা হয়েছে। পরে তাদের থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়।
টেকনাফ মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এবিএমএস দোহা বলেন, ফেরত আনা চারজনকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

Top