প্রার্থীদের জোয়ারে ভাসছে কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন।।

IMG_20190303_183229.jpg

চেয়ারম্যান পদে ১১ ও পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১০,মহিলা-৩

আবদুর রাজ্জাক,কক্সবাজার প্রতিনিধি।।

নির্বাচন কমিশনের পুনঃতফসীল ঘোষণা পর কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীদের জোয়ার বাইছে। নির্বাচন অফিসের তালিকায় প্রতিদিন যোগ হচ্ছে নতুন নতুন প্রার্থীর নাম। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে বেশ কৌতুহলের সৃষ্টি কয়েছে। অপরদিকে সাধারন ভোটারদদের মাঝে নির্বাচনের আমেজ শুরু হয়েছে। প্রার্থীরাও ইতিমধ্যে নির্বাচনী কার্যক্রম শুরু করে দিয়েছেন। নির্বাচনে নিজের পক্ষে সমর্থন ও দোয়া চেয়ে প্রার্থীরা মাঠে ময়দানে ভোটারদের মন জয়ের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। নেতাকর্মীদের নিয়েও মতবিনিময় সভা করে যাচ্ছেন এসব প্রার্থীরা। এবার উপজেলা পরিষদর নির্বাচনে চেয়ারম্যানের পদে নতুন মুখ দেখা যাচ্ছে। একটি পৌরসভা ও ১০টি ইউনিয়ন (ইসলামপুর, ইসলামাবাদ, ঈদগাঁও, জালালাবাদ, পোকখালী, ভারুয়াখালী, চৌফলদন্ডি, খুরুশকুল, পিএমখালী, ঝিলংজা) নিয়ে গঠিত কক্সবাজার সদর উপজেলা। সর্বমোট ভোটার রয়েছেন ০২ লাখ ৫৬ হাজার ৬’শত ৪৪ জন। ত্
তৎমধ্যে পুরুষ ভোটার হল ১ লাখ ৩৫ হাজার ৪ ‘শত ৪২ এবং মহিলা ভোটার হল ০১ লাখ ২১ হাজার ২’ শত ০২ জন। ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা হল সর্বমোট ১’শত ০৮টি। ভোট কক্ষের (বুথ) সংখ্যা (অস্থায়ী ৫৬টিসহ) ৫’শত ২০টি।
এদিকে আজ রবিবার (০৩ মার্চ) পর্যন্ত চেয়ারম্যান পদে ১১ জন এবং ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১০ জনের নাম পাওয়া গেছে। নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে রয়েছে ৩ জন।
চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী (নৌকা প্রতীক) জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক কায়সারুল হক জুয়েল, কক্সবাজার পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল আবছার, কক্সবাজার পৌরসভার সাবেক প্যানেল মেয়র জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম, জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী অধ্যাপক আতিকুর রহমান, জেলা পরিষদের সদস্য ঈদগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সোহেল জাহান চৌধুরী, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ আবু তালেব, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য মাহমুদুল করিম মাদু, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইশতিয়াক আহমেদ জয়, শ্রমিক নেতা মোহাম্মদ সেলিম আকবর এবং জালালাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা ছাত্র লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইমরুল হাসান রাশেদ।এদিকে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান শহিদুল আলম বাহাদুর (ভিপি বাহাদুর)।তিনি রবিবার (৩ মার্চ) দুপুরে কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন বলে নিজেই নিশ্চিত করেছেন।
পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীরা হলেন- ঈদগাঁও সাংগঠনিক উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি আমজাদ হোসেন ছোটন রাজা, তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা কাজী রাসেল আহম্মদ নোবেল, ব্যবসায়ী ও সংবাদকর্মী আবদুর রহমান, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) মোরশেদ হোসাইন তানিম, হাসান মুরাদ আনাচ, কাইয়ুম উদ্দীন, রশিদ মিয়া, কামাল উদ্দিন, বাবুল কান্তি দে। মোহাম্মদ সেলিম আকবর। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীরা হলেন- হেলেনাজ তাহেরা (বর্তমান ভাইসচেয়াম্যান), জেলা যুব মহিলা লীগের সভানেত্রী আয়েশা সিরাজ ও মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী হামিদা তাহের।
কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার শিমুল শর্মা এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। মনোয়নপত্র সংগ্রহ ও দাখিলের শেষ সময় ৪ মার্চ, প্রার্থীতা যাচাই বাছাই ৬ মার্চ, প্রত্যাহার ১৩ মার্চ এবং ভোট গ্রহণ ৩১ মার্চ। এর আগের তফসীল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ তারিখ ছিল ২৬ ফেব্রুয়ারী এবং ভোট গ্রহণ ছিল ২৪ মার্চ। এক সপ্তাহ পিছিয়ে ৩১ মার্চ ধার্য্য করে পুনঃতফসীল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।
মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিনে চেয়ারম্যান পদে কায়সারুল হক জুয়েল ও মোহাম্মদ সেলিম আকবর তাদের মনোনয়নপত্র জমা দেন। মনোনয়নপত্র নিলেও দাখিল করেননি জাতীয়পার্টির প্রার্থী অধ্যাপক আতিকুর রহমান। তবে, স্বতন্ত্র প্রার্থী সেলিম আকবরের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার নিয়ে রাতভর চলে নাটকীয়তা। ঢালপালা গড়ায় অনেক দূর। ঘটনা নতুন মোড়ে রূপ নেয়। পরে দিন সকালে নোটিস আসে, সদরের ভোটের ধার্য্য তারিখ এক সপ্তাহ পিছিয়ে ৩১ মার্চ করেছে নির্বাচন কমিশন।
নতুন তফসীলে মনোনয়নপত্র সংগ্রহের সুযোগ পেয়ে প্রার্থীর সংখ্যা বাড়তে থাকে। যারা স্বপ্নেও প্রার্থী হওয়ার কথা ভাবেনি, তারাও ভোটযুদ্ধে নেমে পড়ে। মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে। এতে করে অনেকটা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান হতে যাওয়া কায়সারুল হক জুয়েলকে পড়তে হলো অনিশ্চয়তায়।

Top