যশোরের পুলিশ সুপারসহ ৩৪৯ পুলিশ কর্মকর্তা সাহসিকতার পদক পাচ্ছেন

51398317_2106409229436916_2910558371377577984_n.jpg

আবদুর রহিম রানা, যশোর ঃ
২০১৮ সালে সাহসিকতা ও বীরত্বপূর্ণ অবদান রাখায় যশোরের পুলিশ সুপার সহ বাংলাদেশ পুলিশের ৩শত ৪৯ জন সদস্যকে পদক দেওয়া হচ্ছে। সোমবার রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে ‘পুলিশ সপ্তাহ-২০১৯’ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদকপ্রাপ্তদের হাতে এ পদক তুলে দেবেন।
সেবা, সাহসিকতা ও বীরত্বপূর্ণ ভূমিকার জন্য পুলিশ সপ্তাহে পদক দেওয়া হয়, যা বিপিএম এবং পিপিএম নামে পরিচিত। প্রথমটি বাংলাদেশ পুলিশ পদক এবং পরেরটি রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক।
এছাড়া অভিযান পরিচালনাকালে সন্ত্রাসীদের দ্বারা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করায় ডিবির ইন্সপেক্টর জালাল উদ্দিনকে
এবং ২০১৫ সালে জামায়াত-বিএনপির পেট্রলবোমায় ঢাকার মৎস্য ভবন মোড়ে আহত হয়ে মারা যাওয়া ডিএমপির কনস্টেবল শামীম মিয়াকে বিপিএম (মরণোত্তর) দেওয়া হচ্ছে।
শীর্ষ কর্মকর্তাদের যারা বিপিএম পদক পাচ্ছেন:
র্যাব মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া, কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম, পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের অতিরিক্ত আইজি মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের ডিআইজি (প্রশাসন)
হাবিবুর রহমান, ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন।
আরো যারা পদক পাচ্ছেন: মীর শহীদুল ইসলাম, বিপিএম-সেবা, পিপিএম, অতিরিক্ত আইজি, এসবি। চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন, পিপিএম, ডিআইজি, ঢাকা রেঞ্জ। মো. মনিরুজ্জামান, বিপিএম-বার, পিপিএম- বার, অতিরিক্ত ডিআইজি (ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড স্পেশাল অ্যাফেয়ার্স), পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স। মো. মোজাম্মেল হক, বিপিএম, পিপিএম-সেবা, অতিরিক্ত ডিআইজি, র্যাব। জয়দেব কুমার ভদ্র, অতিরিক্ত ডিআইজি, সিলেট রেঞ্জ। মো. আসাদুজ্জামান, পিপিএম- বার, অতিরিক্ত ডিআইজি, ঢাকা রেঞ্জ।
মোল্যা নজরুল ইসলাম, বিপিএম, পিপিএম-বার, বিশেষ পুলিশ সুপার, সিআইডি। মঈনুল হক, বিপিএম, পিপিএম-সেবা, পুলিশ সুপার, যশোর। সৈয়দ নুরুল ইসলাম, বিপিএম (বার), পিপিএম, পুলিশ সুপার, কুমিল্লা। বিপ্লব কুমার সরকার, বিপিএম, পিপিএম, উপপুলিশ কমিশনার, ডিএমপি। প্রলয় কুমার জোয়ারদার, বিপিএম, পিপিএম, উপ-পুলিশ কমিশনার, ডিএমপি।

Top