যশোরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত বিল্লালের মা গ্রেফতার

received_1236090696539067.jpeg

আব্দুর রহিম রানা, যশোর :
মণিরামপুরে স্কুলপড়ুয়া শিশু তারিফ হোসেনকে অপহরণের পর হত্যায় অভিযুক্ত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত কিশোর বিল্লালের মা মরিয়ম বেগমকে (৫০) আটক করেছে পুলিশ।
শনিবার বিকেলে থানার এসআই ফিরোজ আলম উপজেলার ফেদাইপুর গ্রাম থেকে তাকে আটক করেন। এরআগে দুপুরে ওই গ্রামে ভাই মহসিনের বাড়িতে আসেন মরিয়ম বেগম। পরে মহসিনের পক্ষ থেকে বিষয়টি তারিফের পরিবারকে জানানো হয়। তখন তারিফের পরিবার মরিয়ম বেগমকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করে।
তবে হত্যাকাণ্ডে অন্যতম সন্দেহভাজন মরিয়মের স্বামী গোলাম মোস্তফা ওরফে কাঠু মোস্তফাকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। গত বুধবার রাত থেকে মরিয়ম ও তার স্বামী মোস্তফা পলাতক ছিলেন।
তারিফ হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ফিরোজ আলম অভিযুক্ত মরিয়ম বেগমকে গ্রেফতারের তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
গত রোববার উপজেলার খানপুরের ফেদাইপুর গ্রামের তৃতীয় শ্রেণিপড়ুয়া তারিফ হোসেন নিখোঁজ হয়। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে স্বজনরা জানতে পারেন, প্রতিবেশী বিল্লাল নামে এক তরুণ তারিফকে অপহরণ করেছে। একপর্যায়ে মুক্তিপণ বাবদ পাঁচ লাখ টাকাও দাবি করে বিল্লাল। বিষয়টি থানা পুলিশকে জানালে পাশের কেশবপুর উপজেলা থেকে মঙ্গলবার রাতে পুলিশ বিল্লালকে আটক করে।
পুলিশ জানায়, আটক বিল্লাল তার বাবা-মায়ের সহযোগিতায় তারিফকে হত্যা করেছে বলে স্বীকারোক্তি দেয়। পরে রাত ১১টার দিকে পুলিশ বিল্লালকে নিয়ে লাশ উদ্ধারে গেলে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয় সে। এই ঘটনার পর বিল্লালের পরিবার বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়।

Top