মণিরামপুরকে নতুন আঙ্গীকে গড়তে চাই ; গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য

Monirampur-Picture-10.01.2019-1.jpg

আব্দুর রহিম রানা, যশোর :
স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি বলেছেন, মণিরামপুরে কোন মাস্তান-সন্ত্রাস, মাদক থাকবে না। কোন
বাল্যবিবাহ হবে না। মণিরামপুরের মানুষ শান্তিতে থাকবে সেটাই আমি দেখতে চাই।
মণিরামপুরের মানুষ আমাকে ভালবেসেছে। এ জন্যে প্রতিটি নির্বাচনে আমাকে ভোট দিয়ে মর্যাদার আসনে নিয়েছে। আমি প্রতিমন্ত্রী হয়েছি এটা মণিরামপুরবাসীর অর্জন। মন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার পর আমার প্রথম কাজ হবে মণিরামপুরকে নতুন আঙ্গীকে সাজিয়ে তোলা এবং মণিরামপুর
মানুষকে শান্তি দেওয়া, অন্যায়ের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া। বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারী) মণিরামপুর পৌরসভা মাঠে অনুষ্ঠিত স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালন ও গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে তিনি এ কথা বলেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র আলহাজ্ব কাজী মাহমুদুল হাসানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক ফারুক হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য আরো বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা একটি সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন দেখছেন। সে কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোন দূর্নীতি বাজকে আশ্রয় দিবে না। এ কারণে আমাকে এই প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে মন্ত্রী পরিষদে জায়গা করে দিয়েছেন।
তিনি আরও বলেন, যে নেতার জন্ম না হলে আমরা একটি মানচিত্র পেতাম না, আজ সেই বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। প্রতিটি
বাঙালিকে আজকে এ দিবসটির কথা স্বরণ করতে হবে। মণিরামপুরে আগামী উন্নয়নের কথা তুলে ধরে মন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য আরো বলেন, ইতিমধ্যে মণিরামপুরে দুটো বাইপাস সড়ক নির্মাণের কার্যক্রম শুরু করেছি। প্রতিটি রাস্তা-ঘাট, শিক্ষা- প্রতিষ্ঠানসহ প্রতিটি গ্রামে সরকারের
উন্নয়ন কাজ অব্যাহত থাকবে। প্রতিটি গ্রাম আলোকিত হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে যারা ধ্বংস করতে চেয়েছিলো তারা আজ আস্তাকুড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছে। এদেশের কোন ষড়যন্ত্রকারী, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসের ঠাঁই হবে না।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রতিমন্ত্রীর সহধর্মীনি বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের যশোর জেলার সাধারন সম্পাদক তন্দ্রা ভট্টাচার্য্য, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন লাভলু। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনসার উদ্দীন, আওয়ামী লীগ নেতা কেশবপুর পৌরসভা মেয়র রফিকুল ইসলাম মোড়ল, ঢাকুরিয়া ইউনিয়ন সাবেক চেয়ারম্যান এরশাদ আলী, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জয়দেব নন্দী, যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোতাহারুল ইসলাম রিয়াদ,
আওয়ামী লীগ নেতা সন্দীপ ঘোষ, কাজী টিটো, যুবলীগের আহবায়ক উত্তম চক্রবর্তী বাচ্চু, যুগ্ম আহবায়ক মনিরুজ্জামান মিল্টন, ছাত্রলীগের আহবায়ক মুরাদুজ্জামান মুরাদ, যুগ্ম আহবায়ক ফজলুর রহমান প্রমুখ।
এর আগে সংবর্ধিত প্রধান অতিথিকে উপজেলা-পৌর আওয়ামী লীগ, মহাজোটের শরিক দল, মণিরামপুর প্রেসক্লাব, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বাজার ব্যবসায়ী সমিতি, সামজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানায়।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিপুল সংখ্যক লোকসমাগম ঘটে।
উল্লেখ্য, যশোর-০৫ (মণিরামপুর) সংসদ সদস্য স্বপন ভট্টাচার্য্যকে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী করায় উপজেলা
আওয়ামী লীগ তাকে এ সংবর্ধনা প্রদানের আয়োজন করেন।

Top