শীতে কাতর মানুষের গায়ে মানবতা’র ভালোবাসার কম্বল

49898123_648090272272385_7624527292202483712_n.jpg

শহিদুল্লাহ রাজিব,চট্টগ্রাম :

শুক্রবার রাত একটা। কনকনে উত্তুরে হাওয়া। খোলা আকাশের নিচে দেওয়াল ঘেষে কুন্ডলী পাকিয়ে ঘুমিয়ে আছে বাস্তুহারা মানুষ। নিজেকে উঞ্চ রাখার আপ্রাণ চেষ্টা। কারো গায়ে তেল চিটচিটে কাঁথা। কেউ মুড়িয়েছে প্লাস্টিকের চট। কারও গায়ে তাও নেই। শুক্রবার রাতে হাটহাজারীর-ফটিকছড়ি বিভিন্ন এলাকায় খোলা আকাশের নিচে শুয়ে থাকা মানুষের গায়ে কম্বল জড়িয়ে দেয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মানবতা। এ সময় শীতার্ত মানুষের আনন্দাশ্রুতে সিক্ত হন মানবতা পরিবার।

সত্তরোর্ধ্ব এক বৃদ্ধ। বাড়ী ইছাপুর। দিনে করেন ভিক্ষা। রাত হলে পথেই বাঁধেন বাসা। সারা দিন এ গলি ও গলি ঘুরে ছিলেন ক্লান্ত। কনকনে শীতেও অঘোর ঘুমে। গায়ে তেল চিটচিটে পাতলা কাঁথা। উত্তুরে হাওয়ায় ঘুমের ঘোরেও কঁকিয়ে উঠছেন। এসময় মানবতার পক্ষ থেকে জড়িয়ে দেওয়া হয় কম্বল। সারাদিনের সঞ্চয় কেউ খুয়ে নিচ্ছেন মনে করে ধড়মড়িয়ে উঠে বসেন। পরক্ষণেই চোখে পড়ে নতুন কম্বল।

অপলক তাকিয়ে থাকেন কিছুক্ষণ। পরক্ষণে তার গায়ে জড়িয়ে দেওয়া মানবতার পরিবারের সদস্যটির মাথায় হাত বুলিয়ে দেন। বললেন,‘এই শীতে গরম কাপড় ছাড়া ফুটপাতে রাত কাটানো খুবই কষ্টের। কারো কাছ থেকে এই প্রথম শীতের কাপড় পেয়েছি। আল্লাহ তোমাদের ভালো করুক। ’

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার চবি ১নং রেল স্টেশন, হাটহাজারী সদর, চারিয়া, সরকারহাট, মনিয়াপুকুর, কাটিরহাট, নয়াহাট, নাজিরহাট বাজার, ঝংকার, মাইজভান্ডার দরবার শরীফ, বিবিরহাটসহ বিভিন্ন পয়েন্টে আকাশের নিচে বসবাসকারীদের হাতে তুলে দেয়া হয় এ কম্বল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মানবতা সংগঠনের আহবায়ক মো: শহীদুল্লাহ্ সজীব, যুগ্ন-আহবায়ক এস.এম তৌহিদুল আলম, সদস্য সচিব মনজুরুল হোসেন, মনছুর ইসলাম, রবিউল হোসেন, তৌসিফ, সাজ্জাদ সাকিব, সাজ্জাদ, রোমান প্রমুখ।

Top