জামালপুরে ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রী চার মাসের অন্তসত্তা

rep1.jpg

রোকনুজ্জামান সবুজ, জামালপুর ঃ
জামালপুর সদরের মেষ্টা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর এক ছাত্রী জনৈক দিনমজুর কন্যা আজ থেকে চার মাস আগে ধর্ষণের শিকার হয়েছে। প্রভাবশালী ধর্ষক পরিবারের অব্যাহত হুমকির মুখে মেয়েটি চার মাসের অন্তসত্তা হয়েছে। অবশেষে আজ বুধবার মেয়েটির মা বাদী হয়ে সদর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।
পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে, জামালপুর সদর উপজেলার মেষ্টা ইউনিয়নের হাসিল বটতলা গ্রামের মুন্না হাসান মেহেদীর(২২) সাথে আজ থেকে ছয় মাস আগে একই ইউনিয়নের ঝাউরাম গ্রামের জনৈক দিনমজুরের স্কুল পড়–য়া কন্যার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। ওই প্রেমের সম্পর্কের সুত্রে মুন্না হাসান মেহেদী গত ৮ সেপ্টেম্বর রাতে ঝাউরাম গ্রামে মেয়েটির বাড়িতে যায়। সেখানে সে মেয়েটিকে নিজ ঘরে একা পেয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে সে ঘটনাটি প্রকাশ না করতে ধর্ষিতাকে প্রান নাশের হুমকি দিয়ে পালিয়ে যায়। এরপর প্রভাবশালী ধর্ষকের অব্যাহত হুমকির মুখে মেয়েটি চার মাসের অন্তসত্তা হয়। এরই একপর্যায়ে বিষয়টি চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে। এব্যাপারে স্থানীয় গন্যমান্যরা কয়েকদফা গ্রাম্য শালিশ করেছেন। তবে ধর্ষকের প্রভাবশালী পরিবারের হুমকির মুখে বিষয়টির মিমাংশা প্রক্রিয়া ভেস্তে গেছে। অবশেষে আজ বুধবার মেয়েটির মা বাদী হয়ে সদর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।
জামালপুর সদর থানার ওসি নাসিমুল ইসলাম জানান, ধর্ষণের শিকার স্কুল ছাত্রী চারমাসের অন্তসত্তা হওয়ার বিষয়ে থানায় একটি মামলা হয়েছে। মেয়েটির জবানবন্দি রেকর্ড ও ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে এবং ধর্ষককে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Top