আনসার সদস্যের বেতন না দেয়ায় চকরিয়া আদালতে ইলিয়াছের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা

IMG_20190105_022924.jpg

সাঈদী আকবর ফয়সাল,চকরিয়া:
চকরিয়ার ১০ আনসার সদস্যের চাকুরীর বেতন বকেয়া রেখে প্রতারণা করায় কক্সবাজারের ইলিয়াছ সওদাগরের বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার (৩জানুয়ারী) একটি সিআর মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেছে চকরিয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত।
মামলার বাদী চকরিয়া উপজেলার পূর্ববড়ভেওলা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড ঈদমনি গ্রামের মৃত সিরাজ আহমদের পুত্র মো: জুবাইরুল ইসলাম মামলার আর্জিতে জানিয়েছেন, আনসার ও ভিডিপি সদর দপ্তর এর অঙ্গীভূত আনসার গার্ড অনুমোদন, প্রশাসন ও ব্যবস্থাপনা সর্ম্পকিত নীতিমালা অনুযায়ী কক্সবাজার সদর উপজেলার পাহাড়তলী এলাকার ইলিয়াছ সওদাগরের মালিকানাধীন মেসার্স হাসান রিয়েল এস্টেট লি: এ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে তিনি (বাদী)সহ ১০জন আনসার সদস্য বিগত ২০১০সনের ১১ নভেম্বর থেকে চাকুরী করেন। চাকুরীর কয়েকমাস বেতন-ভাতা চালালেও পরবর্তীতে ওই আনসার গার্ডটি প্রত্যাহার করা হলে উল্লেখিত ইলিয়াছ সওদাগর নভেম্বর’১৩ হতে এপ্রিল’১৪ পযর্ন্ত ১০ আনসার সদস্যের চাকুরীর বেতন-ভাতা ২লাখ ৬৬৩০২ টাকা বকেয়া রেখে দেন। তন্মধ্যে বাদী জুবাইরুল ইসলামের বকেয়া রয়েছে ৪৮,৬৯৮টাকা। এনিয়ে তিনি (আনসার সদস্য জুবাইর) বেতন আদায়ে আনসার ও ভিডিপি’র উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে একাধিকবার অভিযোগ করেন। কিন্তু কোন সুরহা হয়নি। সর্বশেষ ২০১৮সনের ৮মে ভূক্তভোগী আনসার ভিডিপি সদস্য জুবাইরুল ইসলাম বাদী হয়ে মেসার্স হাসান রিয়েল এস্টেট লি: এর স্বত্ত¡াধিকারী ইলিয়াছ সওদাগরের বিরুদ্ধে চকরিয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা (সিআর ৪৫৬//১৮) দায়ের করেন। আদালত অভিযোগ আমলে নিয়ে আনসার ও ভিডিপি জেলা কমান্ড্যান্ট,কক্সবাজারকে তদন্তের নির্দেশ দেন। ওই আদেশের প্রেক্ষিতে ঘটনার সত্যতা পেয়েছেন মর্মে গত ২৫ জুলাই’১৮ইং আদালতে প্রতিবেদন দেন জেলা কমান্ড্যান্ট দেওয়ান মাতলুবুর রহমান। আদালতে প্রতিবেদন গৃহীত হলে ৩জানুয়ারী’১৯ইং শুনানী শেষে অভিযুক্ত ইলিয়াছ সওদাগরের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন চকরিয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত।##

Top