আমরা নিরপেক্ষ নই,আমরা স্বাধীনতার পক্ষে

22-12.jpg

নজরুল ইসলাম,কুতুবদিয়া:

১৯৭১ সালের ত্রিশ লাখ শহীদের আত্মাহুতি ও দু’লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমহানির বিনিময়ে অর্জিত মহান স্বাধীনতা আমরা ভূলন্ঠিত হতে দিতে পারি না। যে চেতনার প্রদীপ্ততায় বাংলা মায়ের সাহসী সন্তানেরা দেশকে শত্রু মুক্ত করার অভিপ্রায়ে যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিল,সেই অভিনাসী চেতনাকে ধারণ করে আমরা আজও দেশ মাতৃকার অতন্দ্র প্রহরী। তাই আমাদের সাহসী উচ্চারণ “ আমরা নিরপেক্ষ নই,স্বাধীনতার পক্ষে।” স্বাধীনতার চেতনাকে যারা ধারণ করে, তারাই একমাত্র দেশমাতৃকার প্রতি দায়বদ্ধ”। ২২ ডিসেম্বর (শনিবার) সকাল ১০ টায় কুতুবদিয়া মহিলা কলেজ ও উত্তর বড়ঘোপ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত “বিজয় দিবসের তাৎপর্য শীর্ষক আলোচনা” সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।
সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে আরম্ভ হওয়া আলোচনা সভায় বক্তারা আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তিকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করার জন্য আহবান জানিয়ে বলেন, উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে স্থিতিশীল রাজনৈতিক অবস্থার পাশাপাশি উন্নয়ন ও জনগণ বান্ধব সরকার প্রয়োজন। কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এফ.এম. নুরুল আলমের সভাপতিত্বে ও বাংলা বিভাগের প্রভাষক ওসমান গণি’র স ালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উত্তর বড়ঘোপ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও কুতুবদিয়া মহিলা কলেজের প্রতিষ্ঠাতা মন্ডলীর সদস্য, বরেণ্য শিক্ষাবিদ প্রফেসর আখ্তার আলম। সভায় মূখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন কুতুবদিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সৌকস কর্মকর্তা দিদারুল ফেরদাউস।
এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুতুবদিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আলহাজ্ব মোঃ নুরুচ্ছফা। কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী তবারেকা বেগমের কোরআন পাঠের মধ্য দিয়ে আরম্ভ হওয়া সভায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন অর্থনীতি বিভাগের প্রভাষক নজরুল ইসলাম। এ সময় মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী আয়েশা ছিদ্দীকা ও কুতুবদিয়া সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন সালাহ উদ্দিন কাদের (তুষার) ।
এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মহিলা কলেজের প্রভাষক যথাক্রমে মোঃ সাইফুদ্দিন, মাহমুদুল করিম, আবদুল খালেক, সুনিয়া শারমিন, নাছরিন সোলতানা, উত্তর বড়ঘোপ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা জিন্নাত রেহেনা, সহকারী শিক্ষিকা যথাক্রমে আন্জুমান কাদের, শাহিন আকতার ও মোঃ সেলিম প্রমূখ।
শেষে স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ মহান স্বাধীনতা লাভের জন্য আত্মদানকারী শহিদদের আত্মার মাগফেরাত এবং আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তির বিজয় কমনা করে মুনাজাত করা হয়। মুনাজাত পরিচালনা করেন মৌলানা মোহাম্মদ ছলিম।

Top