সাতকানিয়ায় শিশুকে নির্যাতনের পর গলা টিপে হত্যা

images-3.jpg

মোঃ নাজিম উদ্দিন, দক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:
চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় এক শিশুকে নির্যাতনের পর গলা টিপে হত্যা করা হয়েছে। শিশুর নাম তৌহিদুল ইসলাম সায়েম (৯)। সে উপজেলার মাদার্শা আশ্রয়ণ প্রকল্পের আবদুল মন্নান ওরফে সাকের আলীর ছেলে। গত শুক্রবার রাতে উপজেলার মাদার্শা বটতলী আনিকার ঝিরি এলাকা থেকে পুলিশ শিশুটির লাশ উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় জড়িত মো. সাকিল (২৩) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে শিশু সায়েমকে ফুসলিয়ে পেয়ারা দেয়ার কথা বলে মাদার্শা বটতলী আনিকার ঝিরি পাহাড়ি এলাকায় নিয়ে যান মো. সাকিল। সেখানে তিনি শিশুটির ওপর পাশবিক নির্যাতন চালান। শিশুটি পাশবিক নির্যাতনের বিষয়টি তাঁর স্বজনদের বলে দেবে বললে তাকে রশি দিয়ে বেঁধে গলা টিপে হত্যা করেন। পরে তিনি শিশুটির লাশ পাহাড়ি ঝিরির পাশে মাটি চাপা দেন।
শিশুটির বাবা আবদুল মন্নান সাংবাদিকদের বলেন, ঘটনার দিন সন্ধ্যার পরও আমার ছেলে বাড়িতে ফিরে না আসায় খোঁজাখুজি করতে থাকি। এ সময় স্থানীয় বাসিন্দারা আমার ছেলেকে নিয়ে সাকিল সকালের দিকে পাহাড়ের দিকে যেতে দেখেছেন বলে জানায়। পরে স্থানীয় লোকজনসহ সাকিলকে আটক করে সায়েমের ব্যাপারে জানতে চাইলে ছেলেকে হত্যা করে মাটি চাপা দেওয়ার কথাটি স্বীকার করেন।
সাতকানিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মাহমুদুল করিম বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে শুক্রবার দিবাগত রাতে বটতলী আনিকার ঝিরি এলাকা থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত সাকিল প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নির্যাতনের পর শিশুটিকে গলা টিপে হত্যা করে মাটি টাপা দেওয়ার কথা স্বীকার করেন। শিশুটির লাশ ময়না তদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো
হয়েছে।
তিনি বলেন, এ ঘটনায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

Top