টেকসই সামাজিক পরিবর্তনে ডেমোক্রেসিওয়াচ ও ব্রিটিশ কাউন্সিলের একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

received_535291396876393.png

আলমগীর হোসেন (ঢাবি)ঃ

ব্রিটিশ কাউন্সিলের অধীনে ডেমোক্রেসিওয়াচ থেকে Active Citizens Youth leadership ট্রেনিং এ অংশগ্রহণ করেন ২৬ জন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী।গত ১৬ নভেম্বর থেকে ১৯ নভেম্বর পর্যন্ত টানা চারদিনের ট্রেনিং শেষে তারা সমাজ পরিবর্তনের লক্ষ্যে মানুষকে সচেতন করার জন্য একটি স্যোশাল এ্যাকশন প্রজেক্ট গ্রহণ করে।ট্রেনিং শেষে ডেমোক্রেসীওয়াচ এর সমন্বয়ক ফাতেমাতুল বতুল প্রজেক্ট পরিচালনার জন্য তিন হাজার টাকার আর্থিক সহায়তা করেন।

“প্রশ্ন করি বিবেককে পাল্টাই নিজেকে” স্লোগান কে সামনে রেখে প্রজেক্টের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ছয় মাস মেয়াদের এই প্রজেক্টের নামকরণ করা হয়েছে Spread Humanity।

বর্তমান সময়ে কোনো দুর্ঘটনা ঘটলে উৎসুক জনতার ভিড় দেখতে পাওয়া যায়। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলে ভীড়ের কারনে আগুন নেভানো কঠিন হয়ে পড়ে।অ্যাম্বুলেন্স যেতে সমস্যা হয়।এমন পরিস্থিতিতে দুর্ঘটনায় আহত ব্যক্তিকে সাহায্য না করে অনেকে ছবি তোলে, কেউ তাকে সহায়তার জন্য এগিয়ে আসে না।

স্কুল-কলেজ,অফিস-আদালত গামী নারীদের রাস্তাঘাটে হয়রানীর খবর আমরা প্রায় দেখি থাকি।এই যে উৎসুক জনতা যদি কখনও অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ায় তাহলে ভালো কিছু ঘটতেও পারে।

Spread Humanity প্রজেক্টের মূল উদ্দেশ্য এসকল বিষয়ে মানুষকে সচেতন করা।ক্যাম্পেইন ও নাটকের মাধ্যমে তারা মানুষকে সচেতন করবে।ঢাকা শহরের ধানমন্ডি লেক,সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ইত্যাদি ভিন্ন ভিন্ন এলাকায় তারা কাম্পেইন করে মানুষকে সচেতন করবে।প্রজেক্টে অংশ নেওয়া স্বেচ্ছাসেবকেরা আশা করছে চল্লিশ হাজার মানুষকে তারা এ বিষয়ে সচেতন করতে পারবে।

Top