চট্টগ্রামে ক্যাব’র পোল্ট্রি সেক্টরে সুশাসন প্রকল্পের উদ্যোগে ক্যাপাসিটি বিল্ডিং কর্মশালা অনুষ্ঠিত

DLO-Dr-Jshim.jpg

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি ঃ
নাগরিকের সামাজিক ও রাজনৈতিক মর্যদা প্রতিষ্ঠা ছাড়া সকলের জন্য নিরাপদ খাদ্য ও ভোক্তা অধিকার নিশ্চিত সম্ভব নয়
নাগরিক হিসাবে সামাজিক ও রাজনৈতিক মর্যাদা প্রতিষ্ঠা না হলে একজন নাগরিক যেমন সরকারী-বেসরকারী সুযোগ সুবিধা ও অধিকার ভোগ করতে নানা প্রতিবন্ধকতার শিকার হচ্ছেন, তেমনি সকলের জন্য নিরাপদ খাদ্য ও ভোক্তা অধিকারের অন্যান্য বিষয়গুলি থেকেও নাগরিকরা প্রতিনিতই বঞ্চিত হবে। সরকার প্রধান হিসাবে বর্তমান প্রধান মন্ত্রী নাগরিকদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় নানামুখি কর্মকান্ড ও উদ্যোগ নিলেও বিভিন্ন পর্যায়ে দায়িত্বপ্রাপ্তরা দায়িত্বপালনের চেয়ে বসকে খুসি করে নিজের আখের গোছাতে ব্যস্ত হবার কারনে সরকারের উদ্যোগের সফল জনগন পাচ্ছে না। তাই এখন প্রয়োজন নাগরিক হিসাবে তাদের মর্যদা প্রতিষ্ঠা। আর যে কোন পর্যায়ে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় নাগরিকদের রাস্ট্রীয় কর্মকান্ডে অংশগ্রহন জরুরি। অন্যদিকে কৃষি, মৎস্য, পশু সম্পদ সেক্টরে সরকারের নানামুখী উদ্যোগের কারনে সকলের জন্য খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়েছে। মানুষ এখন না খেয়ে মরছে না। কিছু কিছু জায়গায় অনিরাপদ খাদ্যের কারনে অকাল মৃত্যুসহ নানা প্রাণঘাতি রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। এছাড়াও দেশের প্রানীজ আমিষের মূল যোগান পোল্ট্রি মাংশ দিয়ে আসলেও পোল্ট্রি মাংশ, ডিম নিয়ে নানা বিভ্রান্তিকর তথ্য, পোল্ট্রি খাদ্যের নিরাপদ উৎপাদন, বিপননে কিছু কিছু জায়গায় যাবতীয় নির্দেশনা ও স্বাস্থ্য বাণী অনুসরণ না করার কারনে এখাতেও ঝুঁকি থেকে যাচ্ছে। আর ভোক্তারা সচেতন ও পুরোপুরি সক্রিয় না হবার কারনে ব্যবসায়ী ও সরকারি নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থাগুলির কাছ থেকে কাংখিত সেবা পাওয়া যাচ্ছে না। তাই জনগনের মাঝে নিরাপদ খাদ্য, বিশেষ করে পোল্ট্রি মাংশ নিশ্চিত করতে সরকারি মান তদারকি প্রতিষ্ঠানগুলোর সমন্বিত উদ্যোগের পাশাপাশি ভোক্তাদেরকে আরও সক্রিয় ও উদ্যোগী হতে হবে। ইউকে এইড, বৃটিশ কাউন্সিলের সহায়তায় প্রকাশ প্রকল্পের কারিগরী সহযোগিতায় পোল্ট্রি সেক্টরে সুশাসন প্রকল্প, কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) চট্টগ্রাম আয়োজনে ১৯ নভেম্বর ২০১৮ইং নগরীর পর্যটন হোটেল সৈকতের সম্মেলন কক্ষে ক্যাপাসিটি বিল্ডিং মাল্টি স্টেকহোল্ডারস কর্মশালায় বিভিন্ন বক্তাগন উপরোক্ত অভিমত জানান।

ক্যাব কেন্দ্রিয় কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট এস এম নাজের হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ রিয়াজুল হক জসিম, বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক হাসানুজ্জমান, সিটিকর্পোরেশনের কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, সিভয়েস২৪ডটকমের সম্পাদক এম নাসিরুল হক। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন থানা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ সেতু ভুষণ দাশ। আলোচনায় অংশনেন ক্যাব চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি জেসমিন সুলতানা পারু, সাধারন সম্পাদক অজয় মিত্র শংকু, চট্টগ্রাম দক্ষিন জেলা সভাপতি আলহাজ্ব আবদুল মান্নান, জানে আলম, জান্নাতুল ফেরদৌস, শাহীন চৌধুরী, রুবি খান, ফারজানা আখতার, মোনায়েম বাপ্পি, সেলিম জাহাঙ্গীর, ঢাকা ট্রিবিউনের আনোয়ার হোসেন, ফতেয়াবাদ চিকস’র মুসলেম উদ্দীন প্রমুখ।

কর্মশালায় পোল্ট্রি মাংশ ও ডিম সম্পর্কে বিভ্রান্তিকর তথ্য, অপপ্রচারের কারনে দেশের মানুষের পুষ্ঠির চাহিদা পুরণে ক্ষতির পাশাপাশি ক্ষুদ্র খামারীরা পোল্ট্রি ও ডিমের ন্যায্য মূল্য না পাওয়া, পোল্ট্রি ফিডের অতিরিক্ত মূল্য, বাচ্চার দাম বেশী, ক্ষুদ্র শিল্পের সুবিধা না পেয়ে বিদ্যুতের অতিরিক্ত বিলের বোঝা বহন, পরিবেশের ছাড়পত্র নিতে নানা ভোগান্তি, সিটিকর্পোরেশন অতিরক্ত লাইসেন্স ফিস, ব্যাংক ঋণ সুবিধা না পেয়ে লোকসান গুনতে বাধ্য হচ্ছে। একই সাথে ভোক্তাদের কাছে প্রকৃত তথ্য না থাকায় তারা সঠিক পণ্যটি কিনতে সক্ষম হচ্ছে না। সেকারনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে নিরাপদ খাদ্য বিষয়ে প্রচারণা পরিচালনাসহ তরুন জনগোষ্ঠিকে নিরাপদ খাদ্য আন্দোলনে সম্পৃক্ত করার উদ্যোগ নেবার আহবান জানানো হয়। কর্মশালায় সরকারী-বেসরকারী কর্মকর্তা, খামারী, পোল্ট্রি ফিড মিল, বিক্রেতা, লাইভ বার্ড বিক্রেতা, সাংবাদিক ও ক্যাব প্রতিনিধিরা অংশগ্রহন করেন।

Top