সদর উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম রহিমুল্লাহর ১ম জানাযা সকাল ১০ টায় কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে, ২য় জানাযা বিকাল ২ টায় ভারুয়াখালী

received_490510388138386.jpeg

মোহাম্মদ ফায়েদ/আসিফ,কক্সবাজার শহর ঃ
কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও কক্সবাজার জেলা জামায়াতের সেক্রেটারি জিএম রহিম উল্লাহ ইন্তেকাল করেছেন(ইন্নালিল্লাহি–রাজেউন।
মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) বিকেল ৩ টায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কক্সবাজার শহরের হোটেল সাগর গাঁওয়ে ঘুমন্ত অবস্থায় তিনি মারা গেছেন বলে পারিবারিক সূত্র নিশ্চিত করেছেন।

সাগরগাঁওয়ের ব্যবস্থাপক ও জিএম রহিম উল্লাহর শ্যালক শাহেদুল ইসলাম জানান, জিএম রহিম উল্লাহ মাঝে মাঝে হোটেল সাগরগাঁওয়ে এসে রাত যাপন করতেন। সোমবার রাতেও এসে হোটেলের চার তলার ৩১৬ নং কক্ষে ঘুমাতে যান। নিয়মিত তিনি সকালে হোটেলের বয়দের ফোন করে নাস্তা আনাতেন। কিন্তু আজ মঙ্গলবার তিনি তা করেননি। দুপুর ২টা পর্যন্ত ঘুম থেকে উঠেননিও। হোটেল বয়রা কয়েকবার গিয়ে দরজা ধাক্কা দিয়েছেন। কিন্তু কোনো সাড়া-শব্দ পাওয়া যায়নি। পরে খবর পেয়ে শাহেদুল ইসলাম এসেও দরজা ধাক্কা দিয়ে সাড়া না পেয়ে ভ্যান্টিলেটর দিয়ে উঁকি মেরে দেখেন- জিএম রহিম উল্লাহ উপুড় হয়ে ঘুমিয়ে আছেন। এরপর ২টা ৪০ মিনিটে বিকল্প চাবি দিয়ে দরজা খুলে দেখি তিনি মারা গেছেন।

কক্সবাজার সদরের ভারুয়াখালীতে জিএম রহিম উল্লাহর জন্মস্থান। তিনি ওই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরিদ উদ্দীন খন্দকার জানান, উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম রহিম উল্লাহর মৃত্যুর খবর পেয়ে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে জিএম রহিম উল্লাহর মৃত্যুর খবর পাওয়ার সাথে সাথে বিপুল মানুষ হোটেল সাগর গাঁওয়ের সামনে ভিড় করেছে।

পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, মরহুমের প্রথম জানাযা কাল সকাল ১০ টায় কক্সবাজার কেন্দ্রীয় ইদগাহ ময়দান, ২য় জানাযা দুপুর ২ টায় ভারুয়াখালী বাজারে অনুষ্ঠিত হবে।।
মরহুমের মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে সর্বত্রে শোকের ছায়া নেমে আসে।।

Top