শহীদদের স্মরণে ৩০ লাখ চারার মধ্যে ২১ চারা রোপন করেছে যশোরের জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশন

received_2193756684247512.jpeg

আব্দুর রহিম রানা, যশোর :
সারাদেশে এ মৌসুমে ২১ লক্ষাধিক গাছের চারা রোপন করেছে জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশন। ‘মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাশ শহীদের স্মরণে ৩০ লাখ গাছের চারা রোপনের সরকারি ঘোষণায় উদ্বুদ্ধ হয়ে এই বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাটি এই গাছের চারা রোপন করেন। এ উপলক্ষে বুধবার দুপুরে প্রেসক্লাব যশোরে সংবাদ সম্মেলন করেছে সংস্থাটি।
সংবাদ সম্মেলনে সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মো. আজাদুল কবির আরজু জানান, ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধ, ৩০ লাখ শহীদের আত্মদান এ বিষয়গুলোর সাথে জড়িয়ে আছে আমাদের আবেগ, ভালোবাসা আর অহংকার। আমাদের কারো বাবা, কারো ভাই, কারো বন্ধু-আত্মীয়-স্বজন স্বাধীনতা যুদ্ধে প্রাণ দিয়েছেন, শহিদ হয়েছেন। এই শহীদদের স্মরণে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা ‘ত্রিশ লক্ষ শহীদের স্মরণে সারা দেশে ৩০ লক্ষ বৃক্ষরোপণ’ আমাদের দারুণভাবে অনুপ্রাণিত করে। এরই প্রেক্ষিতে আমরা আমাদের কর্মএলাকায় বৃক্ষরোপণের সিদ্ধান্ত নেই। আর এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশনের কর্মীরা নিজেদের সবটুকু সামর্থ্য দিয়ে কর্মএলাকায় বৃক্ষরোপণ ও তার পরিচর্যায় সচেষ্ট হয়েছেন।
তিনি জানান, দেশের ৩৯টি জেলায় প্রায় ১২ লাখ অতিদরিদ্র ও দরিদ্র মানুষের সাথে কাজ করছে জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশন। সংস্থার প্রতিটি সদস্যের বাড়িতে কমপক্ষে একটি বৃক্ষ রোপণ ও তার যথাযথ পরিচর্যার বিষয়টি নিশ্চিত করে এ মৌসুমে (আগস্ট-সেপ্টেম্বর ২০১৮) আমরা ৩৪টি জেলায় ২১ লাখ ৩ হাজার ৩৮২টি গাছের চারা রোপণ করেছি। গাছ লাগানোর ক্ষেত্রে আম, জাম, কাঁঠাল, লিচু ও নারিকেল গাছসহ ফলজ বৃক্ষ রোপণে সদস্যদের আমরা উৎসাহিত করেছি। মহান মুক্তিযুদ্ধের শহিদদের প্রতি সম্মান জানানোর পাশাপাশি এই উদ্যোগ দেশের পরিবেশ সংরক্ষণ ও দূষণ প্রতিরোধে অবদান রাখবে।
সাংবাদিক সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশনের উপনির্বাহী পরিচালক অদিতি আরজু, পরিচালক (কর্মসূচি) কাজী মাজেদ নওয়াজ ও পরিচালক (মাইক্রোফাইন্যান্স) মো. আজিজুল হক।

Top